Mountain View

‘শাপ’ মুক্তি হলো না বার্সার

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ২৮, ২০১৬ at ৬:৫৩ পূর্বাহ্ণ

7f4b329af5c2a45eb979202f61e486b6x700x485x45-jpeg3480x

রিয়াল সোসিয়েদাদ ‘শাপ’ মুক্ত হতেই আনোয়েতার মাঠে নেমেছিল বার্সেলোনা। প্রায় ১০ বছর ধরে সোসিয়েদাদের মাঠে জয় খরায় ভুগতে থাকা বার্সা এবারও নিজেদের ‘শাপ’ মুক্ত করতে পারলো না। লা লিগায় ম্যাচটি ড্র হয়েছে ১-১ গোলে।

রিয়াল সোসিয়েদাদের বিপক্ষে আনোয়েতায় বার্সেলোনার জেতার ঘটনা শেষ ঘটে প্রায় ১০ বছর আগে। এক দশক আগে লা লিগার ম্যাচে সান সেবাস্তিয়ানে গিয়ে শেষবার পুরো তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছেড়েছিল তারা, সেটা ছিল ২০০৭ সালে। এরপর বস্ক সৈকতে গিয়ে সাতবার সোসিয়েদাদের মুখোমুখি হয়েছিল বার্সা, কিন্তু একটিতেও জয় দেখেনি।

২০১১ সালে জাভি হার্নান্দেজ ও সেস ফেব্রিগাসের গোলে ২-০ তে এগিয়ে ছিল বার্সা। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে প্রতিপক্ষের দাপটে ২-২ গোলে ড্র হয় ম্যাচটি। পরের মৌসুমেও একই স্কোর হতে পারত, কিন্তু লা রিয়াল আরেকবার দুই গোলে পিছিয়ে পড়েও জিতল ৩-২ গোলে। সাম্প্রতিক অতীতে বার্সা আনোয়েতায় গিয়ে গত চার লিগ ম্যাচ হেরেছে, সর্বশেষ দুই ম্যাচে হারে ১-০ গোলে। এবারও হারের মুখ দেখতে দেখতেই বেঁচে গেছে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। ম্যাচের শুরু থেকেই বার্সার ওপর চেপে খেলেছিল সোসিয়েদাদ। প্রথমার্ধে কোনও সুযোগই দেয়নি বার্সাকে। উল্টো দ্বিতীয়ার্ধে বার্সার জালে বল জড়ায় স্বাগতিকরা।

৫৩ মিনিটে গোল পায় সোসিয়েদাদ। বার্সা গোলরক্ষক টার স্টেগেন বল বাঁচাতে বেরিয়ে এসেছিলেন। সেটাই কাল হলো অতিথিদের। ফিরতি বল পেয়ে ১২ গজ দূরে থেকে হেড করে গোল করেন উইলিয়ান। যদিও জালের ভেতরে লাইনের ওপরে থেকে বৃথা চেষ্টা করেছিলেন পিকে।

হারের মুখে পড়ে যাওয়া বার্সাকে এবার রক্ষা করেন প্রাণভোমরা মেসি। ৫৯ মিনিটে সমতায় ফেরান বার্সাকে। সমতা ফেরানো গোলটি বানিয়ে দিয়েছিলেন নেইমার। তবে এতেও বসে থাকেনি রিয়াল সোসিয়েদাদ। বার বার গোল মুখে জটলা পাকাচ্ছিল তারা।

যার ধারাবাহিকতায় ৭৬ মিনিটে ফের সুযোগ মেলে সোসিয়েদাদের। প্রথম শটটি বারের নিচে লেগে লাইনের ওপর দিয়ে ফের গিয়ে থামে ৬ গজ দূরে থাকা জুয়ানমির কাছে। তিনি জালে বল জড়ালেও অফ সাইড বাঁচিয়ে দেয় বার্সাকে!

এরপরে আক্রমণ প্রতিআক্রমণ অব্যাহত থাকলেও স্কোর লাইনে হের ফের ঘটাতে পারেনি স্প্যানিশ জায়ান্টরা।

অপর ম্যাচে ওসাসুনাকে ৩-০ গোলে হারিয়ে জয় ধারায় ফিরেছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ।এর আগে ৫ ম্যাচের মাত্র দুটিতে জিতেছিল অ্যাটলেটিকো।

১৩ ম্যাচ শেষে ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রিয়াল মাদ্রিদ। সমান ম্যাচে ২৭ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে বার্সেলোনা।

এ সম্পর্কিত আরও