ঢাকা : ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, শুক্রবার, ২:০৮ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

জমি নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা পরিদর্শন করলেন সাংসদ দবিরুল

1480251186বালিয়াডাঙ্গী (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধিঃ জমি দখল নিয়ে ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার আমজানখোর ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া গ্রামে দুই পক্ষের সংঘর্ষ ও অগ্নি সংযোগের ফলে উভয় পক্ষের ৭ জন আহত হওয়ার ঘটনা পরিদর্শন করেছেন ঠাকুরগাঁও ২ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি দবিরুল ইসলাম।

এলাকাবাসী জানায় জমি দখলকে কেন্দ্র এ ঘটনার সুত্রপাত হলে মালয় পালের পরিবারের সাথে যতেন পালের পরিবারের লোকজনের সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে উভয় পক্ষের ৭ আহত গুরুতর ভাবে আহত হয়। যতেন পালের লোকজন মালই পালের দুই জোড়া গরু লুট করে নিয়ে গেলে মালই পালের লোকজন নিজেদের খড়িঘরে নিজেরাই আগুন ধরিয়ে দেয়। স্থানীয় লোকজন বিয়ষটি থানায় অবগত করছে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে এবং লুট হওয়া গরু উদ্ধার করে। পরে আহতদের মধ্যে ২ জন কে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রবিবার বিকাল ৪টায় তিনি ঐ এলাকায় এর পরিদর্শন করতে যান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আঃ মান্নান, অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান, অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) সিফাত, হিন্দু-বৌদ্ধ খ্রিষ্ঠান ঐক্য পরিষদের সভাপতি কৃষ্ট মোহন সিংহ, ইউপি চেয়ারম্যান আকালু মোহাম্মদ, লাহিড়ী ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক সুজন ঘোষ প্রমূখ।

সাংসদ দবিরুল ইসলাম ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন উভয় পক্ষের ভুলের কারণে এ ঘটনা ঘটেছে। বাড়বাড়ি না করে ধৈয্য ধারন করুন। কারো উস্কানিমূলক কথা শুনবেন না। বিষয়টি মীমাংসা করার জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও বালিয়াডাঙ্গী থানাকে দায়িত্ব প্রদান করেন। পরিস্থিতি ঠিক না হওয়া পর্যন্ত ঐ এলাকায় পুলিশ বাহিনী থাকবে বলে জানান তিনি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, জমির মালিকান সম্পর্কিত কাগজপত্র যাচাই বাছাই চলছিল। উভয় পক্ষ ধৈর্য্য ধারণ করলে এমন সংঘর্ষ হতো না। যেহেতু দুই দলই একই বংশের লোকজন। আপনার যাতে শান্তিপূর্ণ ভাবে জীবন যাপন করতে পারেন সে বিষয়ে সর্বোচ্চ আইন শৃংখলা বাহিনী সহযোগিতা নিশ্চিত করব। পরিস্থিতি ঠিক হলে আমরা বসে বিষয়টি মীমাংসা করে দেওয়ার চেষ্টা কবর। এদিকে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ ও খ্রিষ্ট্রান ধর্ম ঐক্য পরিষদের সভাপতি বলেন, আমাদের হিন্দুদের নিজেদের মধ্যে ভুল বুঝাবুঝির কারণে এ ঝগড়ার সৃষ্টি হয়েছে। কিছু কুচক্রী মহল এ ঘটনার সাথে সাংসদ দবিরুল ইসলামকে সম্পৃক্ত করেছে এলাকার ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার জন্য। যতেন পালের অভিযোগ সম্পূর্ণরুপে মিথ্যা। তিনি আরও বলেন আমি যতেন পালের সাথে কথা বলেছি সে বলেছে সাংবাদিকরাই উল্টাপাল্টা করে এসব কথা রটিয়েছে। আমি সাংসদ দবিরুল ইসলামের বিষয়ে কোন সাংবাদিককে কোন কথা বলিনি। এটা আমাদের পারিবারিক ঝগড়া। এছাড়াও লাহিড়ী ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক সুজন ঘোষ সাংসদের বিরুদ্ধে অভিযোগের তীব্র নিন্দা জানান।

এলাকার লোকজন সাংসদ দবিরুল ইসলামের নিকট এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি জানিয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

কুমিল্লা বুড়িচংয়ে অজ্ঞাত বৃদ্ধের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

কুমিল্লা প্রতিনিধি।।কুমিল্লা বুড়িচং উপজেলার ষোলনল ইউনিয়নের কদমতলী কালিমন্দিরের পাশ থেকে অজ্ঞাত বৃদ্ধের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার …

Mountain View

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *