ঢাকা : ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, শুক্রবার, ২:০৪ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

বাঁচি কি মরি, মোদিকে রাজনীতি থেকে সরাবো

মোদীর নোট বাতিল বিরোধী আন্দোলনে জনসাধারনের সমর্থন না পেয়ে কার্যত বোল্ড হলেন বামফ্রন্ট। উল্টোদিকে নোট বাতিলের প্রতিবাদে কলকাতা শহরে মিছিলে হাঁটেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোধ্যায়। পূর্ব ঘোষণা মতো সোমবার বেলা বারোটা নাগাদ কলেজ স্কয়্যার থেকে তৃণমূলের প্রতিবাদ মিছিল শুরু হয়। এতে স্বয়ং তৃণমূল নেত্রী মিছিল থেকে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে স্লোগান দেন। তাঁর সঙ্গে গলা মেলান তৃণমূলের নেতা ও সমর্থকরা।
মিছিল শেষে পশ্চিমবঙ্গের মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘মোদিকে রাজনীতি থেকে সরাবেন’। মমতার দাবি, প্রয়োজনে দিল্লিতে নরেন্দ্র মোদির বাড়ির সামনে অনশনে বসবেন তিনি। সোমবার প্রধানমন্ত্রীর নোট বাতিলের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে পথে নেমে এমনই হুঁশিয়ারি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মোদিকে একনায়কের সঙ্গে তুলনা করে মমতার বক্তব্য, হয় মরবেন, নয় বাঁচবেন। তবে মোদিকে রাজনীতি থেকে সরাবেন।
অন্যদিকে, বামদের বনধ সত্ত্বেও কর্মব্যস্ত কলকাতাসহ বিভিন্ন রাজ্য। স্বাভাবিক ছিল ট্রেন, বাস, অটো, ট্যাক্সি, মেট্রো, ফেরি পরিষেবা থেকে জনজীবন। খোলা ছিল দোকান-বাজার। এমনকি বাম কর্মীরাও তাদের দলের ডাকা বনধে পথে নামেনি। সাধারণ মানুষও বনধের বিরোধীতা করে ঘরের বাইরে বেরিয়েছিল। যা দেখে বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান বিমান বসু বলেন, আমরা মনে করেছিলাম মানুষ বুঝবেন, মানুষ বুঝতে পারেন নি। আমরা শিক্ষা নিলাম। আমাদের উচিত ছিলো আরো আলোচনা করে সময় নিয়ে কর্মসূচি নেয়ার। তবে দুশ্চিন্তা একটাই, মানুষকে অনেক দুর্ভোগের মধ্য দিয়ে বুঝতে হবে ভবিষ্যতে। এটাই ছিল সোমবারের মিছিলের মূল সুর। প্রথম থেকেই নোট বিপর্যয়ে নরেন্দ্র মোদির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান তিনি। কখনো দিল্লিতে গান্ধি মুর্তির সামনে ধরনা, তো কখনো রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ।
তবে এবার কলকাতায় পথে নেমে প্রধানমন্ত্রীর নোট বাতিলের সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। লখনৌ, উত্তরপ্রদেশ এজেন্ডায় আগেই ছিলো। এবার দিল্লি গেলে প্রধানমন্ত্রীর বাড়ির সামনে ধরনায় বসবেন। ধর্মতলায় প্রতিবাদ মঞ্চ থেকে হুঁশিয়ারি মমতার। সোমবার দুপুরে কলেজ স্ট্রিট থেকে শুরু হয় মিছিল। পুরোভাগে সংস্কৃতি জগতের বিশিষ্টরা। ছিলেন টেলি ও টলি জগতের বিশিষ্টরা। তারপরের ভাগে কলেজ পড়ুয়া, দলীয় কর্মী, সমর্থকরা। আর মিছিলের সামনে খোদ মুখ্যমন্ত্রী। কলেজ স্ট্রিট-নবীন চন্দ্র স্ট্রিট-হিন্দ সিনেমা-সিআর অ্যাভিনিউ হয়ে বেলা একটা পনের মিনিটে ধর্মতলা পৌঁছায় মিছিল। সময় লাগে দেড় ঘণ্টা। যে পথ দিয়ে মিছিল গেছে তার দু’পাশে প্রচূর মানুষের ভিড়। চোঙা মাইক হাতে মুখ্যমন্ত্রী কখনো মিছিলের উদ্দেশ্য বুঝিয়েছেন, কখনো নোট বাতিলের প্রতিবাদে পাশে থাকার জন্য মানুষকে ধন্যবাদ  জানিয়েছেন মমতা।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

অস্ট্রেলিয়ায় ধর্ষণের শিকার হলো বালক!

অস্ট্রেলিয়ায় বালক ধর্ষণের এমন ঘটনায় চাঞ্চল্য খবর ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্ব মিডিয়ায়। ১০ মেয়ে মিলে প্রায় …

Mountain View

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *