Mountain View

শীতে ঘরোয়া পদ্ধতিতে ঠোঁটের যত্ন

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ২৯, ২০১৬ at ৩:৪৫ অপরাহ্ণ

0ccf8b71888c0b001e2a62ccc7eaadecx624x405x37শীতের হাওয়া বইতে শুরু করেছে। শীত আসার সঙ্গে সঙ্গেই কি ঠোঁটের শুকিয়ে যাওয়ার দিন শুরু হয়ে গেল! তাই শীতের সময় প্রায় সকলেই ভোগেন ঠোঁট ফাটার সমস্যায়। ঠোঁট ফেটে গেছে বা চামড়া উঠে পাতলা হয়ে যাচ্ছে! লিপ জেল বা ভ্যাজলিন ব্যবহার করেও এ সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়া যাচ্ছে না! শেষ পর্যন্ত ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হচ্ছে! তবে ঠোঁট শুষ্ক বা ফাটা সমস্যার সমাধানে প্রায়ই বেগ পেতে হলেও প্রাকৃতিকভাবে খুব সহজেই এ সমস্যাগুলোর সমাধান করা সম্ভব। শীতে ঠোঁটের যত্ন নিতে নিতে পারেন কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি-

-দু-চামচ চিনির সঙ্গে এক চা-চামচ মধু মিশিয়ে ঠোঁটে লাগিয়ে নিন। এবার আলতো করে ঠোঁটের উপর মাসাজ করে নিন। মিনিটখানেক এমন করার পর ঠাণ্ডা পানিতে ধুয়ে নিন।

-মধু ঠোঁটের ত্বক নরম রাখতে মধু বিশেষ উপকারী। দিনের যেকোনও সময়ে মধু এমনিও লাগাতে পারেন, তবে মধুর সঙ্গে একটু গ্লিসারিন মিশিয়ে নিলে ফল আরও ভাল হবে।

-বাজার থেকে গোলাপের পাপড়ি কিনে এনে তা দুধে অথবা গ্লিসারিনে ভিজিয়ে রাখুন বেশ কয়েক ঘণ্টা। এবার গোলাপের পাপড়িগুলির একটি মণ্ড বানিয়ে নিন। এই মণ্ডটি দিনে ৩ বার করে লাগিয়ে নিন। ঠোঁট ফাটার হাত থেকে রক্ষা পাবেন।

-শুষ্ক আবহাওয়ায় নারকেল তেল ও ক্যাস্টর অয়েল ত্বককে কোমল রাখতে বিশেষভাবে সাহায্য করে। রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে এক চামচ ক্যাস্টর অয়েল, এক চা-চামচ গ্লিসারিন এবং কয়েক ফোঁটা লেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে নিয়ে ঠোঁটে লাগিয়ে নিন। পরের দিন সকালে উঠে ঠাণ্ডা পানিতে ধুয়ে নিন। এতে শীতকালেও আপনার ঠোঁট থাকবে কোমল এবং সুন্দর।

-রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে হাতের তালুতে একটু সরিষার তেলের সঙ্গে সামান্য একটু ঘি নিয়ে আঙুলে ডগায় করে আলতোভাবে ঠোঁটে মেখে রাখুন। সকালে ঘুম থেকে উঠে দাঁত মাজতে আয়নার সামনে দাঁড়ালেই টের পাবেন ঠোঁটের এই যত্নের সুফল। মাঝেমধ্যে এই টোটকায় আপনার ঠোঁট বাড়তি চমক দেখাবে আপনাকে।

– পাকা পেঁপে চটকে তার সঙ্গে দুধের মাঠা মিশিয়ে একটা মিশ্রণ করতে হবে। সেটা ঠোঁটে লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। এই প্রলেপ ঠোঁটের পুষ্টিও জোগাবে।

– সমান পরিমাণে লেবুর রস আর মধু মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করতে হবে| এরপর ভালো করে মিশ্রণটি ঠোঁটে লাগিয়ে এক ঘণ্টা অপেক্ষা করে নরম কোনও ভেজা কাপড় দিয়ে আলতো করে ঘষে তুলে ফেলতে হবে| এটি চাইলে প্রতিদিনে এবং দিনে একাধিকবার ব্যবহার করা যাবে।

এ সম্পর্কিত আরও

no posts found

লাইফ স্টাইল এর সর্বশেষ খবর

no posts found
  • লাইফ স্টাইল - এর সব খবর →
  •