Mountain View

নরসিংদীর চরাঞ্চলে স্বাস্থ্য সেবায় এমডিএস’র “দাইঘর”

প্রকাশিতঃ ডিসেম্বর ১, ২০১৬ at ৫:৪৫ অপরাহ্ণ

OLYMPUS DIGITAL CAMERA

OLYMPUS DIGITAL CAMERA

নরসিংদী প্রতিনিধি :নরসিংদীর দুর্ঘম চরাঞ্চলে দরিদ্র পরিবারের দুঃস্থ মা ও শিশু স্বাস্থ্য সেবায় নিরলস ভূমিকা রেখে যাচ্ছে স্থানীয় বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা মাদারস্ ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি (এমডিএস)। দুর্ঘম চরাঞ্চলের কয়েক হাজার স্বাস্থ্য সুবিধা বঞ্চিত পরিবারের দুঃস্থ মা ও শিশুরা এমডিএস পরিচালিত দাইঘরের আওতায় সুুবিধা ভোগ করছে। তৃণমূল পর্যায়ের দাইদের সামাজিক স্বীকৃতি ও সম্মান বৃদ্ধির লক্ষ্যে দক্ষ দাই-কর্মী বাহিনী তৈরী করে দরিদ্র পরিবারের প্রসূতি, নবজাতক এবং নিরাপদ মাতৃত্ব স্বাস্থ্য সেবা প্রদানই এ প্রকল্পের মূললক্ষ্য বলে জানিয়েছেন এমডিএস’র নির্বাহী পরিচালক ফাহিমা খানম।

 
 নরসিংদীতে কর্মরত স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা “এমডিএস ” প্রাথমিক পর্যায়ে কানাডিয়ান সিডা ও উবিনীগ’র সহায়তায় সদর উপজেলার চরাঞ্চলীয় নজরপুর ইউনিয়নের কালাই গোবিন্দপুর গ্রামে স্বাস্থ্য সেবা ও পরামর্শ কেন্দ্র প্রতিষ্ঠায় ও পাইলট প্রকল্পের অধীনে স্থায়ী “দাইঘর” নির্মাণের মাধ্যমে নিয়মিত স্বাস্থ্য সেবাদান কার্যক্রম পরিচালিত করে আসছে। নরসিংদী’র দুর্ঘম চরাঞ্চলের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত স্বাস্থ্যকর্মী (দাই) ও কেন্দ্র তত্ত্বাবধায়ক রাজিয়া বেগম ম্যাটার্নাল নিউবর্ণ এন্ড চাইল্ড হেলথ্ কেয়ার (এমএনসিএইচ) প্রকল্পাধীন “এমডিএস” পরিচালিত স্বাস্থ্য সেবা ও পরামর্শ কেন্দ্র দাইঘর’র সার্বিক তত্ত্বাধায়নের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। 
 
তিনি জানান, ৪ বছর যাবত পরিচালিত দাইঘর’র মাধ্যমে প্রশিক্ষণের ফলে দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা অর্জন করে নিজেদেরকে সামাজিক মর্যাদায় প্রতিষ্ঠিত করেছি। দাইঘর’র মাধ্যমে দক্ষতা বৃদ্ধির ফলে আমরা দরিদ্র অসহায় পরিবারের প্রসুতি ও দুগ্ধদায়ী মা এবং শিশুর স্বাস্থ্য রক্ষায় নিরাপদ প্রসবসহ জন্ম-মৃত্যুর হার- হ্রাস নিশ্চিত করতে পেরেছি। একজন স্বাস্থ্যকর্মী হিসেবে শিশুদের ওজন পরীক্ষা, অ-পুষ্টির শিকার শিশুদের পরিমাপ ও পুষ্টিহীনতা চি‎িহ্নত করা, মা ও শিশুর পুষ্টিহীনতা দূরীকরনে প্রয়োজনীয় পরামর্শ, প্রসূতি ও নবজাতকের মা এবং শিশুদের সহজলভ্য খাবার প্রস্তুতকরনসহ সচেতনতা বৃদ্ধি করাই আমাদের মূল উদ্দেশ্য। দাইঘর নিজস্ব ভ্যানগাড়ী দিয়ে স্থানীয় কমিউনিটি ক্লিনিক বা নিকটতম সরকারী স্বাস্থ্য কেন্দ্রে বিনা ভাড়ায় পরিবহন ও নিরাপদ স্বাস্থ্য সেবা প্রদানে সহায়তা করে থাকে।
 
 
 “দাইঘর” স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রে নিয়মিত মা-সমাবেশ, অভিভাবক সমাবেশ, দাইঘর সেন্টার পরিচালনা পরিষদের সভা, এমডিএস’র কর্মীসভা, ধাত্রী মাতাদের সমন্বয় সভা, স্বাস্থ্য দিবসসহ বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক দিবস উদ্যাপনে নানামুখী জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালিত হয়। শুধু তাই নয় এই প্রকল্পের আওতায় নয়াকৃষি পদ্ধতিতে জমি চাষাবাদ, বিষমুক্ত সবজি চাষ, তামাকজাত দ্রব্য বন্ধের জন্য পরামর্শ, তামাক জাত দ্রব্য ব্যবহারের কুফল, বাল্যবিবাহ, ইভটিজিং, যৌতুক, তালাক, পারিবারিক নির্যাতন ও সহিংসতা প্রতিরোধে সভা, ওঠান বৈঠক ইত্যাদি এবং সরকার কর্তৃক বিনামুল্যে জনগনকে সেবা দেয়া ও নেয়ার জন্য বিভিন্ন সচেতনতামূলক পরামর্শ প্রদান করে থাকে। এলাকাবাসী জানান, স্থানীয় বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা মাদারস্ ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি (এমডিএস) পরিচালিত “দাইঘর” আমাদের চরাঞ্চলীয় এলাকায় স্থাপিত হওয়ায় দরিদ্র অসহায় পরিবারের মা ও শিশুদের চিকিৎসায় টাকা-পয়সার অভাব দূরীকরণ হয়েছে, ফলে জেলা শহরে যেতে হয়না। 
 
বর্তমান সময়ে প্রকল্প বাস্তবায়নাধীন চরাঞ্চলে “দাইঘর”র দক্ষ ধাত্রীমাতা ও অভিজ্ঞ স্বাস্থ্যকর্মী ছাড়া প্রসূতি মায়েদের গর্ভপাত হয় না। সরকারের “সবার জন্য স্বাস্থ্য সেবা” নিশ্চিত করার লক্ষ্যে মা ও শিশু মৃত্যুর হারহ্রাস, শুন্য থেকে ৪৫ বছর বয়সী নারী, শিশু ও কিশোরীদের নিয়ে এ প্রকল্পের মাধ্যমে স্বাস্থ্য বিষয়ক পরামর্শ ও সেবা প্রদান করা হয়ে থাকে। মা ও শিশুদের পাশা-পাশি কিশোরীদের “প্রজনন স্বাস্থ্য” সম্পর্কে পরামর্শসহ তাদের বিভিন্ন রোগ চি‎িহ্নত করে সরকারী হাসপাতাল অথবা স্বাস্থ্য ক্লিনিকে প্রেরণ করা হয়। নরসিংদী সদর উপজেলার চরাঞ্চলখ্যাত নজরপুর ইউনিয়নের ১১টি গ্রামের স্বাস্থ্য সুবিধা বঞ্চিত পরিবারকে স্থানীয় বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা মাদারস্ ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি (এমডিএস) এই “দাইঘর” প্রকল্পের মাধ্যমে সেবা প্রদান করার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে । 
 
এছাড়া চরাঞ্চলীয় এলাকায় পরিচালিত “দাইঘর” মা ও শিশুর স্বাস্থ্য সেবা দানে কার্যকর সফলতা আনার লক্ষ্যে সংস্থার কর্মকর্তা-কর্মচারী ব্যতিরেকেও সরকারী-বে-সরকারী বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, “দাইঘর” পরিচালনা কমিটির স্থানীয় প্রতিনিধিসহ আর্থিক সহায়তা দানকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাবৃন্দ বিভিন্ন সময় পরিদর্শন পর্যবেক্ষনের মাধ্যমে সহায়তা প্রদান করে আসছে।এ প্রকল্পের আওতায় একজন স্থায়ী প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত স্বাস্থ্যকর্মী (দাই) ও ১৯ জন খন্ডকালীণ দাই এর মাধ্যমে এ পর্যন্ত প্রায় সহ¯্রাধিক গর্ভবতী মাকে সেবা প্রদান করা হয়েছে। তন্মধ্যে নবজাতক শিশু, ০ থেকে ৫ বছরের শিশু ও কিশোরীকে সেবা প্রদান করা হয়েছে। দাইঘরের আওতায় ৩১ জন অভিজ্ঞ ধাত্রীমাতা মা ও শিশুর স্বাস্থ্য সেবায় নিয়োজিত থেকে নিরলস ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে।
 
 
এলাকার সচেতন নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি ও সাধারণ জনগণ জানান, নরসিংদীর চরাঞ্চলীয় এলাকায় উক্ত প্রকল্পটি নির্ধারিত মেয়াদে না হয়ে জনগণকে স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতন করার লক্ষ্যে প্রকল্পটি স্থায়ীভাবে সকল চরাঞ্চলীয় ইউনিয়ন ও গ্রাম পর্যায়ে প্রতিষ্ঠাসহ অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য চরাঞ্চলের প্রতিটি এলাকায় এ পরামর্শ কেন্দ্র (দাইঘর) প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সরকারের পাশাপাশি এনজিওদের স্বাস্থ্য সেবা কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা বিশেষভাবে প্রয়োজন।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View