Mountain View

নিউ ইয়র্কে প্রবাসীদের জাতিসংঘে মিয়ানমারের স্থায়ী মিশন ঘেরাও

প্রকাশিতঃ ডিসেম্বর ২, ২০১৬ at ১০:৪১ পূর্বাহ্ণ

mayanmar-e

মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের উপর অব্যাহত গণহত্যাসহ বর্বরোচিত অত্যাচার-নির্যাতন বন্ধের দাবিতে নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘে মিয়ানমারের স্থায়ী মিশন ঘেরাও  কর্মসূচি পালন করেছে প্রবাসী বাংলাদেশিরা। বিক্ষোভ ও মানববন্ধন শেষে মিয়ানমার দূতাবাসে স্মারকলিপিও প্রদান করেন প্রবাসী বাংলাদেশিদের একটি প্রতিনিধি দল। স্থানীয় সময় বুধবার দুপুরে ইউনাইটেড আমেরিকানদের উদ্যোগে আয়োজিত এই বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচিতে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন মানবাধিকার,সামাজিক সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনসহ দলমত নির্বিশেষে সর্বস্তরের প্রবাসী মুসলমানরা অংশ নেন।বিক্ষোভকারীরা মিয়ানমারের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠীর ওপর বর্বর অত্যাচার, গণহত্যার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে রোহিঙ্গাদের নাগরিক অধিকার এবং তাদের জীবনের নিরাপত্তা নিশ্চিতসহ রোহিঙ্গা সমস্যার স্থায়ী সমাধানের জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দৃষ্টি আর্কষণ করেন।

তারা জাতিসংঘসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা এবং যুক্তরাষ্ট্রসহ সকল বৃহৎ রাষ্ট্রকে মানবিক বিবেচনায় রোহিঙ্গাদের সহযোগিতা এবং এই সংকটের স্থায়ী সমাধানের জন্য আহ্বান জানান।বাংলাদেশ-আমেরিকান কমিউনিটি কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট ও ব্রঙ্কস কমিউনিটি বোর্ডের ফাস্ট ভাইস চেয়ারম্যান আইনজীবী মোহাম্মদ এন মজুমদারের পরিচালনায় এ বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচিতে স্বাগত বক্তব্য দেন ওয়ার্ল্ড রোহিঙ্গা অর্গানাইজেশন ইনক এর প্রেসিডেন্ট মো. মহিউদ্দিন ইউসুফ, মানবাধিকার আইনজীবী সানফোর্ড রোবিন স্টিন, মূলধারার রাজনীতিক মেরি সিলভার, জেমস কিগান, বাংলাদেশ সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহিম হাওলাদার, সহ সভাপতি ফারুক মজুমদার,  বাংলাদেশি আমেরিকান ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক সোসাইটির সভাপতি আব্দুস শহীদ, বাংলাবাজার জামে মসজিদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আলহাজ গিয়াস উদ্দিন, শ্রমিক নেতা আব্দুর রহিম বাদশা, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সভাপতি আব্দুল লতিফ সম্রাট, সাবেক সহ সভাপতি গিয়াস আহমেদ, হাসান আলী, ইকবাল আহমেদ মাহবুব, আঞ্জুমানে আল ইসলাহ ইউএসএ’র সাধারণ সম্পাদক বাংলাবাজার জামে মসজিদের খতীব মাওলানা আবুল কাশেম ইয়াহইয়াহ, ইউনাইটেড ইমাম উলামা কাউন্সিল ইউএসএ’র হাফেজ লুৎফুর রহমান কাসেমী, মাওলানা রফিক আহমেদ, কমিউনিটি এক্টিভিস্ট আলমাস আলী, সাখাওয়াত আলী, নজরুল হক, আবদুল গাফফার চৌধুরী খসরু, মঞ্জুর চৌধুরী জগলুল, আকসাদ আলী বাবুল, রফিকুল ইসলাম চৌধুরী, ড্রামের অর্গানাইজার কাজী ফৌজিয়া ও সাংবাদিক ইমরান আনসারী প্রমুখ।

সমাবেশে মানবাধিকার আইনজীবী সানফোর্ড রোবিন স্টিন মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের গণহারে হত্যা-নির্যাতনের তীব্র নিন্দা জানিয়ে এবিষয়ে মিয়ানমার সরকারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করা যায় কিনা বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন বলে তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন।সমাবেশে বক্তারা বলেন, মিয়ানমারে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর হামলা, নির্যাতন, জ্বালাও পোড়াও, গণহত্যার ঘটনা বিশ্বে সর্বকালের জঘন্যতম ঘটনা। এ হত্যাকান্ডের বিরুদ্ধে বিশ্বের সকল শান্তিকামী মানুষকে রুখে দাঁড়াতে হবে। নির্যাতিত, অসহায় রোহিঙ্গাদের রক্ষায় দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করার আহ্বান জানান তারা।বক্তারা মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সুচির তীব্র সমালোচনা করেন। তারা বলেন, মিয়ানমার সরকার সেখানকার রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর সকল অধিকার কেড়ে নিচ্ছে। রোহিঙ্গাদের পাইকারীভাবে হত্যা করা হচ্ছে। এসব ঘটনায় নীরব ভূমিকা পালনের জন্য মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচির নোবেল পুরস্কার ফেরত নেয়ারও আহ্বান জানান তারা।

বক্তারা রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে পরিচালিত গণহত্যা এবং নির্যাতন এই মুহূর্তেই বন্ধ করার জন্য মিয়ানমারের সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। বিদেশে বসবাসরত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিজ দেশে ফিরিয়ে নেয়ারও আহ্বান জানান তারা। বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের মানুষ এবং সরকারকে বিপন্ন রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়াতে হবে। শুধুমাত্র প্রাণে বাঁচানোর জন্য হলেও বাংলাদেশকে রোহিঙ্গাদের সাময়িক আশ্রয় দিতে হবে। বাংলাদেশের সীমান্ত খুলে দেয়ার আহ্বান জানান তারা। আগামী ৬ ডিসেম্বর বিকেল ২টা থেকে ৫টা পর্যন্ত একই দাবিতে নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View