ঢাকা : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, মঙ্গলবার, ৪:৪৩ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > চট্টগ্রাম স্টেডিয়ামে হটাৎই রুদ্ধশ্বাস গোলাগুলি

চট্টগ্রাম স্টেডিয়ামে হটাৎই রুদ্ধশ্বাস গোলাগুলি

চট্টগ্রামে টেস্ট খেলতে আসা বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ার খেলোয়াড়দের গাড়িবহর জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের উদ্দেশে রওনা দেয় হোটেল র‌্যাডিসন ব্লু থেকে। বহরের নিরাপত্তায় সামনে-পেছনে নিয়োজিত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চৌকস একটি দল।

খেলোয়াড়দের বহরটি ঈদগাঁ কাঁচা রাস্তার মাথায় যেতেই ঘটে যত বিপত্তি। একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ হামলা করে গাড়িবহরে। সাউন্ড গ্রেনেড ফাটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে খেলোয়াড়দের ওপর হামলা চালায়। কিন্তু আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চৌকস সদস্যরা সুনিপুণভাবে খেলোয়াড়দের উদ্ধার করে নিয়ে যান মাঠে। গতকাল সকালে খেলোয়াড়দের উদ্ধারের এমন মহড়া প্রত্যক্ষ করে নগরবাসী।

চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের (সিএমপি) এ প্রস্তুতি প্রত্যক্ষ করেন ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার নিরাপত্তা পরামর্শক শিন ক্যারল ও তার দল। মহড়ার পর পুলিশের সার্বিক নিরাপত্তা নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন তারা। তিনি বলেন, ‘পুলিশের যে নিরাপত্তা মহড়া দেখানো হলো তা একেবারেই ফার্স্ট ক্লাস। তাদের নিরাপত্তা পরিকল্পনাও অসাধারণ। সার্বিক প্রস্তুতির জন্য পুলিশকে ধন্যবাদ। ’

টাইগার ও অস্ট্রেলিয়ার খেলোয়াড়দের চলাচলের নিরাপত্তা মহড়াই দেখানো হয় অস্ট্রেলিয়ার নিরাপত্তা পরামর্শক ও তার দলকে। এ মহড়ায় খেলোয়াড়দের ভূমিকায় ছিলেন পুলিশ সদস্যরা। দুটি দলের বাসের সামনে-পেছনে পুলিশের বেশ কয়েকটি গাড়ি। সঙ্গে ছিল কয়েকটি মোটরসাইকেলও। মাঠে যাওয়ার জন্য ব্যবহার করা হয় দেওয়ানহাট-এ কে খান রুটকে। মহড়া চলাকালীন সময়ে এ রুটে ক্ষণিকের জন্য বন্ধ রাখা হয় যানচলাচল। নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) দেবদাস ভট্টাচার্য, অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) সালেহ মোহাম্মদ তানভীর, অতিরিক্ত কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) মাসুদ-উল-হাসানের নেতৃত্বে মহড়ায় বিপুল পরিমাণ পুলিশ সদস্য অংশ নেন। এতে পুলিশের বিশেষ বাহিনী সোয়াত, ফায়ার সার্ভিস ও র‌্যাব সদস্যরাও অংশ নেন। মহড়া শেষে অতিরিক্ত কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) মাসুদ-উল-হাসান বলেন, ‘মহড়ার মাধ্যমে আমরা নিরাপত্তা প্রস্তুতিটা দেখিয়েছি। সন্ত্রাসী হামলা হলে কী করণীয় তা আমরা দেখানোর চেষ্টা করেছি। ’

মহড়া প্রত্যক্ষ করার পর ভেন্যু, ড্রেসিং রুম এবং প্রেস বক্সসহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দেখে অস্ট্রেলিয়ার নিরাপত্তা দল। ভেন্যু পরিদর্শন শেষে শিন ক্যারল বলেন, ‘মাঠ অসাধারণ। সুযোগ-সুবিধাও প্রথম শ্রেণির আন্তর্জাতিক ভেন্যুর। ’

বাংলাদেশ সফরে অস্ট্রেলিয়া দল দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলবে। ঢাকায় প্রথম টেস্ট ২৭ আগস্ট শুরু হবে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে। ঢাকা টেস্ট শেষে ১ সেপ্টেম্বর অস্ট্রেলিয়া দলের চট্টগ্রামে আসার কথা। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ৪ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট।

এ সম্পর্কিত আরও

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *