ইসরাইলকে ‘বন্ধুরাষ্ট্র’ বানাচ্ছেন সৌদি প্রিন্স

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৭ at ১১:২১ অপরাহ্ণ

আরবের বর্তমান ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান ইসরাইলকে ‘বন্ধুরাষ্ট্র’ বানানোর চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে।
 মুস্তাহিদ নামের একটি টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে এ সম্পর্কে বেশ কিছু তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।
 ওই টুইটার অ্যাকাউন্টটি সৌদি আরবের আরেক প্রিন্স আব্দুল আজিজ বিন ফাহাদের বলে মনে করা হচ্ছে। খবর মিডলইস্ট মনিটরের।
 টুইটার অ্যাকাউন্টে অভিযোগ করা হয়, বর্তমান প্রিন্স সংযুক্ত আরব আমিরাত, মিসর, বাহারাইন ও সৌদি আরবের সঙ্গে ইসরাইলের সম্পর্ক স্বাভাবিক করে ‘বন্ধুরাষ্ট্র’ হিসেবে স্বীকৃতি দিতে সব পরিকল্পনা সম্পন্ন করেছে।
 অবশ্য এরই মধ্যে বাহরাইন তার দেশের নাগরিকদের ইসরাইল ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করেছে।
 ফলে টুইটার অ্যাকাউন্টে তুলে ধরা অভিযোগ উড়িয়ে দেয়া যাচ্ছে না বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।
 প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের এই পরিকল্পনার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল ট্রাম্প সম্পৃক্ত বলে উল্লেখ করা হয়।
 উপসাগরীয় দেশগুলোতে ইসরাইলের চাহিদামতো নিরাপত্তা, গণমাধ্যম, সংস্কৃতি এবং শিক্ষাখাতের পরিবর্তন আনার জন্য সব পরিকল্পনা সম্পন্ন হয়েছে।
 মিসরের মাধ্যমে এসব পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হবে। মিসর সরকার উপসাগরীয় দেশগুলোতে ইসরাইলের চাহিদা মোতাবেক কাজ করার জন্য জনবল নিয়োগ করবে বলে টুইটারে উল্লেখ করা হয়।
 যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল ট্রাম্প ক্ষমতা গ্রহণের আগে সৌদি আরব থেকে এসব পরিকল্পনা শুরু হয়।
 ট্রাম্প বর্তমান ক্রাউন প্রিন্সকে এসব পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করার জন্য সহযোগিতা করছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে।
 খবরে বলা হয়েছে, ইসরাইলের এসব শর্ত মেনে নেয়ার কারণেই সৌদি বাদশাহর ওপর চাপ প্রয়োগ করে মোহাম্মদ বিন সালমান ক্রাউন প্রিন্স বানানো হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও