Mountain View

বিপিএল বয়কট করতে চায় পিসিবি

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৭ at ৯:১৬ অপরাহ্ণ

ক্রিকেটের এই বিশ্বায়নের যুগে ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি লীগ চালু করেছে বেশ কয়েকটি দেশ। পাকিস্তানের পিএসএল ছাড়াও রয়েছে ভারতের আইপিএল, বাংলাদেশের বিপিএল, ইংল্যান্ডের কাউন্টি, ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্ট, অস্ট্রেলিয়ার বিগ ব্যাশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের সিপিএল।

আর নিজ দেশের ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি লীগ ছাড়াও বাকী দেশের ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি লীগগুলোতে ব্যাপক ভাবে অংশগ্রহণ করছে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। কেবল মাত্র আইপিএলেই বাঁধা তাদের।
তবে আইপিএলের মতো এবার বিপিএল বা অন্য যেকোনো দেশের ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি লিগেও দর্শক হয়ে থাকতে পারে তারা। আর এক্ষেত্রে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডই (পিসিবি) নাকি নীতিমালা করে দিচ্ছে!

এতে অবশ্য নিন্দিতই হচ্ছে পিসিবি। জানা গেছে, বোর্ডের চুক্তিভূক্ত সকল ক্রিকেটারকে এসব বৈশ্বিক ঘরোয়া লিগে খেলা থেকে বিরত রাখার আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছে পিসিবি। আর তার পরিবর্তে পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেটে ক্রিকেটারদের নির্দিষ্ট সংখ্যক ম্যাচ খেলানোর ব্যবস্থা করতে চাইছে তারা।

পাকিস্তানী মিডিয়ার গুঞ্জন অনুযায়ী, পিসিবি চুক্তিভূক্ত খেলোয়াড়দের জন্য নাকি বছরে অন্তত তিনটি ঘরোয়া টুর্নামেন্টের ম্যাচ খেলার ব্যবস্থা করতে চায় পিসিবি। আর বাবর আজম, আহমেদ শেহজাদ ও মোহাম্মদ আমিরদের মতো সকল চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটারের জন্য বাধ্যতামূলক থাকছে এই নিয়ম।উল্লেখ্য, পিসিবি তাদের ন্যাশনাল টি-টোয়েন্টি লিগের আয়োজন করতে চাইছে আগামী নভেম্বরে। আর সে সময়ই দক্ষিণ আফ্রিকায় গ্লোবাল টি-টোয়েন্টি লিগ আর বাংলাদেশে বিপিএল অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আর তাই একই সময়ে তিনটি লিগ চললে ভালো মানের ক্রিকেটার সংকটে ভুগতে পারে পিসিবির ন্যাশনাল টি-টোয়েন্টি লীগ।
আর এই নিয়ম কার্যকর করা হলে সত্যিকার অর্থেই বিপিএলে থাকতে পারবে না কোনো পাকিস্তানি ক্রিকেটার। জানা গেছে, বোর্ডের এমন অপেশাদার সিদ্ধান্তের জোর গুঞ্জনে পাকিস্তানী খেলোয়াড়দের অনেকেই বিরক্ত প্রকাশ করেছেন।

এ সম্পর্কিত আরও