যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার ইঙ্গিত পাকিস্তানের

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৭ at ৪:২৪ অপরাহ্ণ

সন্ত্রাসবাদ নিয়ে এবার সরাসরি সংঘাতের পথে এসে দাঁড়াল আমেরিকা ও পাকিস্তান। দুই রাষ্ট্রের সম্পর্ক এতটাই শীতল হয়ে দাঁড়িয়েছে যে আমেরিকার সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করারও ইঙ্গিত দিয়েছে ইসলামাবাদ। ভবিষ্যতে আমেরিকার কাছ থেকে আর কোনও এফ-১৬ যুদ্ধবিমান না কিনে সামরিক ক্ষেত্রে এবার চীনের দিকেই ঝুঁকতে চলেছে পাকিস্তান।

পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদী সংগঠনগুলিকে মদত যোগাচ্ছে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই মন্তব্যের পরই ইসলামাবাদ ক্ষোভ প্রকাশ করে বলে সূত্রের খবর। এরপরই পাকিস্তান যা কূটনীতি গ্রহণ করেছে, তাতে মার্কিন ও ন্যাটো বাহিনীর পাক সীমান্ত হয়ে আফগানিস্তানে ঢোকাও বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে বলে খবর।

পাক সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, এবার আস্তে আস্তে আমেরিকার সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্কে লাগাম টানা হবে সেইসঙ্গে সন্ত্রাসদমন নিয়ে পারস্পরিক সহযোগিতাও আর করা হবে না।

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই হাতে নয়, ভাতে মারার নীতি নিয়েছে আমেরিকা। যার জেরে, পাকিস্তানকে ন্যাটো সহযোগী রাষ্ট্রের তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে সন্ত্রাসবাদী রাষ্ট্রের তকমাও দিয়েছে আমেরিকা। এই দুইয়ের ফলে বিদেশে অস্ত্র বিক্রি করতে পারবে না ইসলামাবাদ। সেইসঙ্গে বিশ্ব ব্যাংকের ঋণের ক্ষেত্রে ও আন্তর্জাতিক অর্থভাণ্ডারে পাকিস্তান বড়সড় ধাক্কা খাবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

অপরদিকে আমেরিকায় পাকিস্তানের হাবিব ব্যাঙ্কের অপারেশন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আমেরিকার এতগুলি পদক্ষেপে স্বাভাবিকভাবেই ক্ষেপে উঠেছে পাকিস্তান। এবং আমেরিকার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার ইঙ্গিত দিয়েছে। কিন্তু পাকিস্তানের এই পদক্ষেপে আদৌ কি আমেরিকার কিছু আসে যায়, উত্তরটা হয়ত সবারই জানা।

এ সম্পর্কিত আরও