Mountain View

বিসিএস ভাইবা রেজাল্টের আগেই সর্প দংশনে পরপারে শিমু ইসলাম

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৭ at ৬:৫২ অপরাহ্ণ

আব্দুন নুর :  মাত্র কদিন পরেই প্রকাশ করা হবে ৩৬ তম বিসিএস এর চূড়ান্ত ফল। ঠিক তার কদিন আগেই  সাপের কামড়ে মারা গেছেন টাংগাইলের শিমু ইসলাম। সাপের বিষে ছটফট করতে করতে শেষমেশ বাঁচামরার লড়াইয়ে হেরে গেলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০০৭-০৮ শিক্ষাবর্ষের এক নক্ষত্র শিমু আপু।

গতমধ্যরাতে প্রায় ১২টা নাগাদ টাঙ্গাইলের বাসাইলে পৈতৃক বাড়িতে তাঁর সাথে এই নির্মম দুর্ঘটনা টি ঘটে । প্রতিদিন জোরবর্ষায় মফস্বলের ভেজা মাটিতে সাপের চলাচল এখন যত্রতত্র। গতসন্ধ্যা নাগাদ শিমু আপু এক বিষধর সাপের শিকারে পরিণত হন । নিত্যদিন আত্মীয়স্বজনে সরগরম থাকা বাড়িটিতে গতরাতে আর কেউ ছিলেন না… প্রাথমিকভাবে কোনো চিকিৎসাও তিনি পান নি।

টাঙ্গাইল সরকারি হাসপাতাল, কলেজ হাসপাতাল, মধুপুর জলছত্র কোথাও জলদি নিয়ে গিয়ে তাঁর চিকিৎসার ব্যবস্থা করবার মতো কেউ ছিল না।  আত্মীয়দেরকে যোগাযোগ করেন আক্রান্ত শিমু, বিষে নীল হয়ে যেতে যেতে ফেসবুকের নীল দুনিয়ায় ভ্যাকসিনের খোঁজ জানতেও আবেদন জানান। গুটিকতক সাড়া মিললেও স্বজনদের কাউকে না পাওয়ায় ভ্যাকসিন অধরাই থেকে যায়… একসময় পরিজনেরা পৌঁছান, তাঁকে দ্রুততার সাথে নেন ঢাকা মেডিকেল কলেজে… সেখানে নীলাভ শিমুকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়… কিন্তু ততোক্ষণে দেরি হয়ে গেছে ভীষণ… ভ্যাকসিন তখন আর কোনো কাজে আসে নি… বিষাক্ত এই দুনিয়াকে বিদায় জানিয়ে ততোক্ষণে মৃত্যুপথে পা বাড়িয়েছেন তিনি।


জীবনকে সার্থক করবার, কিছু করে দেখাবার প্রত্যয়ে দৃঢ়চেতা ছিলেন শিমু আপু… প্রতিষ্ঠিত হয়ে পরিবারের গর্ব হবার আগে বিয়ের পিড়িতেও বসেন নি তিনি… জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩য় ব্যাচের এই মেধাবিনী বাংলা বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করে বিসিএস ক্যাডারশীপের স্বপ্ন দেখেছিলেন ; ৩৬ তম বিসিএসে ভাইভাবোর্ডে চমৎকার পার্ফর্মেন্স দিয়ে আসা, ৩৭ তম বিসিএসে লিখিত পরীক্ষা দেওয়ার গৌরব অর্জন করে আসা শিমু আপু জীবনের বিষযুদ্ধে হেরে গেলেন… এই ডিজিটাল যুগে এসেও তিনি প্রাথমিক চিকিৎসা ও উপযুক্ত সময়ে ভ্যাকসিনের অভাবে বিষের যন্ত্রণায় তড়পে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন… এমন অকাল-পরিণতি মেনে নেওয়া কষ্টকর। 

এ সম্পর্কিত আরও