Mountain View

সলিকা’র কবিতা ‘অভাব’

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৭ at ১১:৪৫ অপরাহ্ণ

। কবিতা ।

অভাব

-সলিকা

আমার একটা জায়গার অভাব
যে জায়গার নাম নিয়ে আমি তোমার চোখে জন্ম দিতে পারি বিস্ময়!
আমার একটা নামের অভাব
যে নামটা আমার দিনের সাথে জুড়ে আছে জেনে তুমি অবাক হবে!
আমার একটা কার্ডের অভাব
যে কার্ডের পরিচয় তোমাকে অনুপ্রেরণা দিবে!
আমার একটা বাসের অভাব
যেটা তে চড়ে আমি তোমাকে দেখিয়ে দিতে পারি আমি কে !

আমার বড্ড বড় অভাব ।
আজ সেই জায়গায় আমি নেই বলে
অনেক জায়গায় আমার জায়গা হয় না ।
আজ সেই নামের ট্যাগটা আমার প্রোফাইলে খুঁজে পাওনা বলে
নাক ছিটকিয়ে অন্য নামী প্রোফাইলে মুখ ঘুরিয়ে নাও ।
আজ সেই পরিচয়পত্রের অভাব বলে
মা-বাবা ও কেন যেন আমার পরিচয়কে প্রশ্ন করে ।
আজ আমার সেই লাল বাসটার সৌভাগ্য নেই বলে
সামনের রাস্তাটা রীতিমতো ভাঙ্গা মনে হয় ।
হয়তো রাস্তাটা আর আমার স্বপ্নের দিকেই আর নেই ,
মোড় ঘুরিয়ে চলে গেছে এমন গন্তব্যে
যার চিন্তা কখনো করিনি ।

আজ হয়তো অন্যের মতো আমার ভাতের অভাব নেই
কিন্তু ভাতের লোকমায় আছে অন্নধ্বংসের অপবাদ ।
আজ হয়তো অন্যের মতো আমার জামার অভাব নেই
শুধু জামার সুতোয় আছে বিলাসিতার মিথ্যে ফোঁড় ।
আজ হয়তো অন্যের মতো বই-খাতার অভাব নেই
তবুও আছে আমার পড়াশুনায় টাকা নষ্টের অভিশাপ ।
আজ হয়তো অন্যের মতো সুযোগের অভাব আমার নেই
দিন শেষ সাথে ঠিকই আছে সারাদিনের কটুক্তির বোঝা ।

অভাবের আত্মা আমার এইভাবেই বেঁচে আছে ।
জানি না , কেন সেদিন এতোটা হিংস্র ছিল পৃথিবী
অথবা এখনো কেন আছে !!
আমার স্বপ্নভঙ্গই কী যথেষ্ট ছিল না ?
ভবিষ্যতের পথে অভাবের কান্নাই কী তবে সঙ্গী হবে ?
মেনে নেবে না সমাজ আমার
একটা নাশন্যালে পড়া প্রধানমন্ত্রী
কিংবা এক প্রাইভেটে পড়া সায়েনটিস্ট কে ?
তবে ক্যানোই বা জন্ম এখানে ?
মাটিতে পচে যাওয়া সেই ছোট্ট শিশুটিও তো বোধ হয়
আমার চেয়ে সুখে আছে ।

লেখকঃ সলিকা,

১ম বর্ষ , ইংরেজি বিভাগ,

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

এ সম্পর্কিত আরও