Mountain View

ওয়ানডে সবগুলো দলের সর্বমোট ম্যাচ ও জয় পরাজয়ের তালিকা

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৭ at ৩:৫১ অপরাহ্ণ

জুবায়ের আহমেদ: ক্রিকেটের তিনটি ফরম্যাটের মধ্যে টেস্ট ঐতিহ্যবাহী ও গৌরবের ফরম্যাট হলেও জনপ্রিয়তার দিক থেকে ওয়ানডেই এগিয়ে, অবশ্য অনেকে টি২০ ক্রিকেটকেই বেশি জনপ্রিয় মনে করেন, ভিন্নমত থাকতেই পারে, কোনটা বেশি জনপ্রিয় লেখার উদ্দেশ্য সেটা নয়। ১৯৭১ সালে ওয়ানডে ক্রিকেট আবির্ভারের পর চলতি মাসের ২৪ তারিখ পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ওয়ানডে খেলা দলগুলোর সর্বমোট ম্যাচ, জয় পরাজয় নিয়েই এই লেখা।

১টি ওয়ানডেও খেলেছেন এমনসবগুলোর সর্বমোট ম্যাচ, জয় পরাজয়-
১। আফগানিস্তান দল ২০০৯ সাল থেকে এ পর্যন্ত ৮৩টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলে ৪২টি জয় ও ৩৯টি ম্যাচ পরাজয় এবং ২টি ম্যাচ কোন রেজাল্ট হয়নি।
২। অস্ট্রেলিয়া দল ১৯৭১ সাল থেকে এ পর্যন্ত ৯০৪টি ম্যাচ খেলে ৫৫৪টি জয়, ৩০৭টি পরাজয় এবং ৯টি টাইয়ের বিপরীতে ৩৪টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
৩। বাংলাদেশ দল ১৯৮৬ সাল থেকে ৩৩২টি ম্যাচ খেলে ১০৫টি জয়, ২২০টি পরাজয় এবং ৭টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
৪। কানাডা ১৯৭৯ সাল থেকে ৭৭টি ম্যাচ খেলে ১৭টি জয়, ৫৮টি পরাজয় ও ২টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
৫। বারমুডা ২০০৬ সাল থেকে ৩৫টি ম্যাচ খেলে ৭টি জয় ও ২৮টি ম্যাচে পরাজয়বরণ করেন।
৬। পূর্ব আফ্রিকা ১৯৯৫ সালে ৩টি ম্যাচ খেলে ৩টিতেই পরাজয়বরণ করেন।
৭। ইংল্যান্ড ১৯৭১ সাল থেকে ৬৯৪টি ম্যাচ খেলে ৩৪০টি জয়, ৩২২টি পরাজয় এবং ৮টি টাইয়ের বিপরীতে ২৪টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
৮। হংকং ২০০৪ সাল থেকে ১৮টি ম্যাচ খেলে ৬টি জয়, ১১টি পরাজয় এবং ১টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
৯। ভারত ১৯৭৪ সাল থেকে ৯২৫টি ম্যাচ খেলে ৪৭৩টি জয়, ৪০৫টি পরাজয় এবং ৭টি টাইয়ের বিপরীতে ৪০টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
১০। আয়ারল্যান্ড ২০০৬ সাল থেকে ১২৩টি ম্যাচ খেলে ৫১টি জয়, ৬২টি পরাজয় এবং ৩টি টাইয়ের বিপরীতে ৭টি ম্যাচ কোন রেজাল্ট হয়নি।
১১। কেনিয়া ১৯৯৬ সাল থেকে ১৫৪টি ম্যাচ খেলে ৪২টি জয়, ১০৭টি পরাজয়ের বিপরীতে ৫টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
১২। নামিবিয়া ২০০৩ সাল থেকে ৬টি ম্যাচ খেলে ৬টিতেই পরাজয়বরণ করেন।
১৩। নেদারল্যান্ড ১৯৯৬ সাল থেকে ৭৬টি ম্যাচ খেলে ২৮টি জয়, ৪৪টি পরাজয় এবং ১টি টাই ও ৩টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
১৪। নিউজিল্যান্ড ১৯৭৩ সাল থেকে ৭২৮টি ম্যাচ খেলে ৩২৩টি জয়, ৩৬০টি পরাজয় এবং ৬টি টাইয়ের বিপরীতে ৩৯টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
১৫। পাকিস্তান ১৯৭৩ সাল থেকে ৮৭৯টি ম্যাচ খেলে ৪৬৪টি জয়, ৩৮৯টি পরাজয় এবং ৮টি টাইয়ের বিপরীতে ১৮টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
১৬। পাপুয়া নিউগিনি ২০১৪ সাল থেকে ৮টি ম্যাচ খেলে ৪টি জয়ের বিপরীতে ৪টি ম্যাচে পরাজয়বরণ করে।
১৭। স্কটল্যান্ড ১৯৯৯ সাল থেকে ৯১টি ম্যাচ খেলে ৩০টি জয়,৫৫টি পরাজয় এবং ৬টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
১৮। সাউথ আফ্রিকা ১৯৯১ সাল থেকে ৫৮০টি ম্যাচ খেলে ৩৫৮টি জয়, ২০০টি পরাজয় এবং ৬টি টাইয়ের বিপরীতে ১৬টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
১৯। শ্রীলংকা ১৯৭৫ সাল থেকে ৮০৩টি ম্যাচ খেলে ৩৭২টি জয়, ৩৯০টি পরাজয় এবং ৫টি টাইয়ের বিপরীতে ৩৬টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
২০। আরব আমিরাত ১৯৯৪ সাল থেকে ৩৫টি ম্যাচ খেলে ৯টি জয়ের বিপরীতে ২৬টি ম্যাচে পরাজয়বরণ করে।
২১। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৯৭৩ সাল থেকে ৭৬৪টি ম্যাচ খেলে ৩৮০টি জয়, ৩৪৮টি পরাজয় এবং ৯টি টাইয়ের বিপরীতে ২৭টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
২২। জিম্বাবুয়ে ১৯৮৩ সাল থেকে ৪৯১টি ম্যাচ খেলে ১২৯টি জয়, ৩৪৫টি পরাজয় এবং ৬টি টাইয়ের বিপরীতে ১১টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি।
২৩। ইউনাইটেড স্টেট অব আমেরিকা ২০০৪ সাল থেকে ২টি ম্যাচ খেলে ২টিতেই পরাজয়বরণ করে।

এছাড়াও এশিয়া একাদশ ২০০৫ সাল থেকে ৭টি ম্যাচ খেলে ৪টি জয়, ২টি পরাজয় এবং ১টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি। আফ্রিকা একাদশ ২০০৫ সাল থেকে ৬টি ম্যাচ খেলে ১টি জয়, ৪টি পরাজয় এবং ১টি ম্যাচে কোন রেজাল্ট হয়নি। বিশ্ব একাদশ ২০০৫ সাল থেকে ৪টি ম্যাচ খেলে ১টি জয়ের বিপরীতে ৩টি ম্যাচে পরাজয়বরণ করে।

এ পর্যন্ত ২৩টি দল আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচে অংশগ্রহণ করেছে। তার মধ্যে ইষ্ট আফ্রিকা এবং সাউথ আফ্রিকা একই হলেও ক্রিকেটে ইষ্ট আফ্রিকা নামেই আফ্রিকা প্রথম অংশগ্রহণ করে। তারপর দীর্ঘ ১৬/১৭ বছর আফ্রিকা ক্রিকেটের বাহিরে থাকার পর ১৯৯১ সালে সাউথ আফ্রিকা দল আত্মপ্রকাশ করে। ২৩টি দলের মধ্যে বর্তমানে কেনিয়া এবং আমেরিকার ওয়ানডে স্ট্যাটাস নেই।

জয়ের হার সবচেয়ে বেশি অজিদের। ৬৪.১৯% ম্যাচে জয় পায় অজিরা। অবশ্য এশিয়া/আফ্রিকা একাদশের ম্যাচের হিসেব করলে জয়ের হার সবচেয়ে বেশি এশিয়া একাদশের। ৬৬.৬৬% জয় পায় এশিয়া একাদশ। তবে ৭টি ম্যাচ খেলে মাত্র এশিয়া। দেশের হিসেবে অজিরাই প্রথম। তারপর আছে সাউথ আফ্রিকা ৬৪.০০%। পাকিস্তান ৫৪.৩৪%। ভারত ৫৩.৮৪%।

নবাগত দলগুলোর মধ্যে জয়ের হার সবচেয়ে বেশি আফগানিস্তানের ৫১.৮৫%। মাত্র ৮৩টি ম্যাচ খেলেই ৪২টি ম্যাচে জয়লাভ করে আফগানরা। বাংলাদেশের হয়ের হার মাত্র ৩২.৩০%।

একের অধিক ওয়ানডে ম্যাচ খেলা দলগুলোর মধ্যে ইষ্ট আফ্রিকা, আমেরিকা এবং নামিবিয়া সবগুলো ম্যাচেই পরাজয়বরণ করে।

এ সম্পর্কিত আরও