Mountain View

রুবেলের কণ্ঠে সফল হওয়ার মন্ত্র

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৭ at ৬:২৬ অপরাহ্ণ


স্পোর্টস ডেস্ক,বিডি টোয়েন্টিফোর টাইমসঃ দক্ষিণ আফ্রিকার কন্ডিশন বাংলাদেশ থেকে বেশ ভিন্ন। সেটা শুধু আবহাওয়ার ক্ষেত্রেই নয়, উইকেটের ক্ষেত্রেও। স্পিনে অভ্যস্ত বাংলাদেশের জন্য সিমিং কন্ডিশনের দক্ষিণ আফ্রিকায় খেলা একটু দুরূহই। তবে তা ব্যাটসম্যান ও স্পিনারদের জন্য। পেসারদের জন্য তো দক্ষিণ আফ্রিকা স্বর্গরাজ্য!টেস্টে ভালো করতে না পারার কথা স্বীকার করলেন রুবেল আর তাই দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের প্রসঙ্গ এলেই ঘুরেফিরে লাইমলাইটে আসছেন পেসাররা। বাংলাদেশ দলের ডানহাতি পেসার রুবেল হোসেন প্রস্তুত হচ্ছেন প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানদের বিপক্ষে জ্বলে উঠতে। পেস কন্ডিশনের সুবিধা কাজে লাগিয়ে ভালো করতে মরিয়া তিনি।

সোমবার দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টের ভেন্যু পচেফস্ট্রুম পৌঁছায় টাইগাররা। এ সময় সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে রুবেল হোসেন জানান সিরিজে ভালো করার মন্ত্র।পেস বোলারদের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকা আদর্শ জায়গা উল্লেখ করে রুবেল বলেন, ‘আমরা জানি দক্ষিণ আফ্রিকায় পেস বোলারদের যথেষ্টই সাহায্য থাকে। উইকেট বাউন্সি থাকে এবং কন্ডিশন অনুযায়ী মাঝে মধ্যে সুইংও থাকে। তো পেস বোলারদের জন্য এটা খুবই আইডল একটি জায়গা।’পেসাররা পরিকল্পনা মতো বল করতে পারলে সাফল্য পাওয়া সম্ভব বলে মনে করছেন রুবেল। ২৭ বছর বয়সী ফাস্ট বোলার বলেন, ‘আমরা যারা পেস বোলার আছি তারা যদি পরিকল্পনা করে বল করতে পারি এবং জায়গা মতো বোলিং করতে পারি তাহলে আমরা সফল হবো।’টেস্টে পেসারদের লাইন-লেংথ বজায় রেখে বল করা উচিত বলে মনে করছেন রুবেল- ‘আমার মনে হয় পেস বোলারদের এখানকার কন্ডিশন অনুযায়ী লাইন ও লেংথ বজায় রেখে বোলিং করতে হবে।’পরক্ষণেই রুবেল জানান এর কারণ- ‘বাউন্সি উইকেটে পেছনে বল করলে ব্যাটসম্যানদের জন্য কাজটি সহজ হয়ে যাবে। সেই ব্যাপারটি আমাদের অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে।’আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যকার প্রথম টেস্ট। সফরে স্বাগতিকদের বিপক্ষে দুটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টি-২০ ম্যাচ খেলবে টাইগাররা।

এ সম্পর্কিত আরও