Mountain View

হিন্দু নারীদের মধ্যে মাথায় ঘোমটা দেওয়ার রেওয়াজ আছে কী?

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ৫, ২০১৭ at ১২:৪১ অপরাহ্ণ

এক্সক্লুসিভ ডেস্ক: মুসলিমদের মধ্যে যেমন বোরখা পরার চল রয়েছে, তেমনই হিন্দু মহিলাদের মধ্যে রয়েছে মাথায় ঘোমটা দেওয়ার রেওয়াজ। বিশেষ করে বিবাহিত মহিলারা শাড়ি পরে ঘোমটা দিয়ে থাকেন। পুজোর সময় আঁচলে মাথা ঢাকার প্রচলনও রয়েছে। কিন্তু, অন্যান্য রীতি-রেওয়াজের মত কি এই ঘোমটা দেওয়ার কোনও পৌরাণিক তত্ত্ব আছে?

শুধু পুরাণ নয়, হিন্দু ধর্ম সংক্রান্ত কোনও গ্রন্থেই এই ঘোমটা দেওয়ার রীতির কোনও ব্যাখ্যা পাওয়া যায় না। যাঁরা এ ব্যাপারে গবেষণা করেছেন, তাঁরা জানিয়েছেন ধর্মীয় এমন কোনও প্রথার উল্লেখ কোথাও নেই। এমনকি কোনও বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যাও নেই এর পিছনে। তবে কেন এই রীতি? নেহাতই প্রচলন বলেই হয়ত প্রজন্মের পর প্রজন্ম এই রীতি মেনে আসছেন হিন্দু মহিলারা।

এই ঘোমটা প্রথা নিয়ে রয়েছে অনেক বিতর্কও। হয়ত কোনও এক সময় সম্মান প্রদর্শনের একটি পন্থা ছিল এই ঘোমটা দেওয়া। তবে অনেক ব্যাখ্যায় বলা হয়, ধুলোবালি থেকে নিজেকে আড়াল করে রাখার জন্য ঘোমটা দেওয়ার রীতি এসেছিল। আর পুজোর সময় ঘোমটা দেওয়ার কারণ হল, এর ফলে মহিলাদের মাথার চুল ঠিক জায়গায় আটকে থাকে। মন্দিরে বা পুজোর উপাচারে চুল স্পর্শ করে না। পরের দিকে নিরাপত্তার কারণে মহিলাদের মাথা একে রাখার প্রথা চালু হওয়ার কথাও জানা যায়।

তবে এসবের পিছনে তেমন কোনও শক্তিশালী যুক্তি নেই। সেই কারণে দক্ষিণ ভারতীয় মহিলারা কখনও প্রার্থনার সময় মাথায় ঘোমটা দেন না। কারণ তাঁদের মতে, এই রীতির সঙ্গে হিন্দু ধর্মের কোনও যোগ নেই। ভারতীয় সংস্কৃতির সঙ্গেও এর কোনও যোগ নেই।-কলকাতাটোয়েন্টিফোর

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View