Mountain View

বাড়তি রোজগারের জন্য বিমানেও দেহব্যাবসা

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ৯, ২০১৭ at ১০:৫৪ পূর্বাহ্ণ


বিমানে যাত্রীদের সেবায় যারা নিয়োজিত থাকে তাদের এয়ার হোস্টেস বা বিমান সেবিকা বলা হয়ে থাকে। কিন্তু এই সেবাই যদি যৌন সেবা হয় তখন এটি হয়ে যায় দেহব্যাবসা। হ্যা, সম্প্রতি এয়ার হোস্টেসদের এমন কার্যকলাপের খবর পাওয়া যায়। তাও আবার লাখ লাখ টাকার বিনিময়ে। কিছু দিন আগেও মধ্যপ্রাচ্যের একটি বিমান সংস্থায় কর্মরত বিমানসেবিকা এক যাত্রীর সঙ্গে সঙ্গমরত অবস্থায় বিমানের মধ্যেই ধরা পড়েন। পরে এ ব্যাপারে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তিনি বলেন, ‘এ ভাবে যাত্রীদের সঙ্গে সেক্স করার বিনিময়ে চড়া দাম নিতেন তিনি। রোজগার করেছেন প্রায় ৭ লাখ পাউন্ড। বেতন তো ছিলই তবে এ ভাবে উপরি আয়ের হাতছানি সহজে ছাড়তে পারেননি তিনি। তাই লং ডিসট্যান্স ফ্লাইটেই বেশি কাজ করতে পছন্দ করতেন। ‘

এদিকে দুবাইয়ের একটি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ‘ওই এয়ার হোস্টেস সেক্সের বিনিময়ে দেড় হাজার পাউন্ড দাবি করতেন যাত্রীদের কাছে। এটাই শেষ নয়। জাপানের এয়ার হোস্টেসরাও এই কাজে নাকি সিদ্ধহস্ত। মাঝ আকাশে বিমানচালক এবং অন্যান্য ক্রু মেম্বারদের সঙ্গে সেক্সের বিনিময়ে তারাও এ ভাবে রোজগারের অন্য পন্থা বার করেছেন। ‘

কিন্তু এয়ার হোস্টেসদের এমন করার কারন কি? উত্তরে অনেকেই জানিয়েছেন, এটি তাদের বাড়তি রোজগার। আবার অনেকেই জানিয়েছেন শুধুমাত্র রোজগারই একমাত্র কারণ নয়। দীর্ঘদিন নিকটজনের কাছ থেকে দূরে থাকায় শারীরিক চাহিদাও এর পেছনে অন্যতম কারণ।

এ সম্পর্কিত আরও