Mountain View

মহাসড়কের বেহাল দশা : প্রতিদিন ঘটছে দুর্ঘটনা

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ১৬, ২০১৭ at ৬:১০ অপরাহ্ণ

দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্থলবন্দর চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ। ভারত থেকে বিভিন্ন প্রকার পণ্যসামগ্রী আমদানী করে এই বন্দর দিয়ে প্রতিদিন প্রায় ৫’শ থেকে ৬’শ পণ্যবোঝাই ট্রাক যাতায়াত করে। যার ফলে দেশের রাজস্ব আহরণ হয় বেশি।

কিন্তু চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ মহাসড়কের কানসাট গোপালনগর মোড়স্থ সড়কের বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে।

এছাড়া ছত্রাজিদপুর-বহলাবাড়ি মোড়ের সড়কের বেহাল দশা। ঘটছে প্রতি মুহুর্ত ছোট-বড় দুর্ঘটনা। যার ফলে ঝুঁকির মধ্যে দিয়ে রাস্তা চলাচল করতে হয় জনসাধারণকে। সড়কের এমন বেহাল দশার কারণে চরম দূর্ভোগের মধ্যে পড়ছে পথচারিরা।

পাশাপাশি সড়কে চলা শিক্ষার্থী, শিক্ষক, সরকারী-বেসরকারী অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারিদের কর্মস্থলে সময় মত পৌঁছাতে দেরি হচ্ছে।

এছাড়া প্রত্যন্ত অঞ্চলের সাধারণ রোগীরা জেলার বাইরে উন্নত চিকিৎসা নিতে যাওয়ার সময় পথের মাঝেই বড় ধরণের দূর্ঘটনাও ঘটছে।

ভাঙ্গা ও ব্যস্ত রাস্তা হওয়ায় সোনামসজিদগামী ও সোনামসজিদ থেকে ছেড়ে আসা পণ্যবোঝাই যানবহন রাস্তার দুই পাশে দীর্ঘ লাইনে পরিণত হয়। সময়মত সরকারী- বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারীরা তাঁদের কর্মস্থলে পৌঁছাতে পারেননা।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরাও অনেক সময় ক্লাসে পৌঁছাতে না পেরে দুশ্চিন্তাই পড়ে। শিক্ষার্থীদের লক্ষ্যমাত্রাই পৌঁছানো কষ্ট স্বার্দ্ধকার হয়ে উঠে।

পথচারিরা বলেন, কানসাট গোপালনগর মোড় এমনিতেই ব্যস্ত রাস্তা, তার উপর ভাঙ্গা-চুরা। এই ব্যস্ত রাস্তায় চলাচল করতে গিয়ে অনেক দূর্ভোগে মধ্যে পড়ি। রাস্তা ভাঙ্গার ফলে অনেক ঝুঁকি নিয়ে পথ চলতে হচ্ছে আমাদের। রাস্তা ভেঙ্গে হাটু পরিমাণ গর্তে পরিণত হয়েছে। ফলে রাস্তার ভাঙ্গা জন্য প্রতিদিন ছোট ছোট দুর্ঘটনা ঘটছে। যে কোন মুহুর্তে বড় ধরণের দূর্ঘটনা ঘটে পারে।

সোনামসজিদ থেকে ছেড়ে আসা দ্রুতগামী পণ্যবোঝাই ট্রাক অনেক ঝুঁকির মধ্যে যাতায়াত করছে। এই মনে হয়, ট্রাক উল্টে পড়লো। রাস্তার পাশ দিয়ে পায়ে হেটে চলা স্কুল-মাদ্রাসার ছোট ছোট শিশুরা আতঙ্কের মধ্যে রাস্তায় চলাফেরা করছে। এছাড়া রাতের বেলা বাইরে থেকে আসা অন্যান্য যানবাহন কিছু বুঝে উঠার আগে ভাঙ্গা রাস্তা পড়ে আহত হচ্ছে।

স্থানীয় দোকানদাররা বলেন, আমরা দেখছি বেশ কিছুদিন থেকে এই রাস্তার পিচ-পাথর উঠে খানাখন্দে পরিণত হয়েছে। সড়ক বিভাগের লোকের মেরামতের জন্য আসলেও হালকা বালি আর ইট ফেলে দায়সারানো কাজ করে চলে যান। এছাড়া মুসলিমপুর-শান্তিমোড় আঞ্চলিক সড়কের বেহাল দশা দেখা গেছে। রাস্তার পিচ-পাথর উঠে রাস্তাটি খানাখন্দে পরিণত হয়েছে।

এই এলাকার সাধারণ পথাচারিরা বলছেন, দীর্ঘদিন থেকে এই রাস্তাটির এমনই অবস্থা রয়েছে। এছাড়া ছত্রাজিতপুর-বহলাবাড়ি এলাকায় ভাঙ্গা ও বাঁকা রাস্তার কারণে দীর্ঘ লাইন হয়ে যানজটে পরিণত হয়।

এব্যাপারে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সুনীতি চাকমা বলেন, সড়ক মেরামতের কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। যতদ্রুত সম্ভব আমরা এই সড়কের সংস্করণের কাজ শুরু করবো।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View