Mountain View

পররাষ্ট্র ক্যাডার কেন “আন্তর্জাতিক সম্পর্ক” বিভাগের জন্য নির্ধারিত করে দেয়া হবে না ?

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ২০, ২০১৭ at ৮:২৩ পূর্বাহ্ণ

ডাক্তার,ইঞ্জিনিয়ার, কৃষি, টেকনিক্যাল সবার জন্য স্বতন্ত্র ক্যাডার নির্ধারিত থাকলে পররাষ্ট্র ক্যাডার কেন “আন্তর্জাতিক সম্পর্ক” বিভাগের জন্য নির্ধারিত করে দেয়া হবেনা সে প্রশ্ন তোলার সময় এসেছে। অন্যান্য ডিসিপ্লিন থেকে পররাষ্ট্র ক্যাডারে আসার নেতিবাচক প্রভাব নিয়ে সম্প্রতি খোদ পররাষ্ট্র সচিব মহাশয় সাক্ষাতকার দেয়ার পর বিষয়টি নিয়ে ভাবার সময় এসেছে বলে আমি মনে করি।

দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠে সেরা সব শিক্ষকদের দীক্ষা নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক অধ্যয়নের বিশেষ কোন তাৎপর্যই যদি না থাকলো, তাহলে নিকট ভবিষ্যতে ছেলে-মেয়েরা আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয় চর্চার আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। পুরোটা বিষয়ের জন্য আমাদের দূর্বল কাঠামোগত ত্রুটি খুঁজে পাই। দেশের স্বার্থেই বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের গুরুত্বপূর্ন এই সিদ্ধান্ত নেয়া সময়ের দাবী। কারও যদি বিসিএস পররাষ্ট্র ক্যাডারাই ধ্যান-জ্ঞ্যাণ হয়ে থাকে তাহলে সে  বিশ্ববিদ্যালয় লেভেলে এই বিষয়ে যথার্থ দীক্ষা নিয়ে আসুক। ৫ বছর মেডিক্যাল- ইঞ্জিনিয়ারিং লাইনে পড়াশুনা করে হুট করে খায়েশ হলো  সরকারের অর্ধকোটি টাকা ইনভেস্টমেন্টকে জলাঞ্জলী দিয়ে দিলাম তা কেন হবে? তাই দেশের স্বার্থে আগামীতে আরও বেশি দক্ষ কূটনীতিক পেতে আমাদের পররাষ্ট্র ক্যাডারটিও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য নির্ধারণ করে দেয়া এখন সময়ের দাবী। আমাদের পররাষ্ট্র সচীব কিন্তু সে বিষয়টিই সামনে নিয়ে এসেছেন।

 

একবার ভাবুনতো, স্বাধীনতার ৪৭ বছরে এসেও দেশের স্পষ্ট কোন পররাষ্ট্রনীতি নেই। দক্ষিণ এশিয়ার ভূ-রাজনীতিতে গুরুত্বের তুঙ্গে থাকা বাংলাদেশ কেন আজ পরাশক্তিগুলোর কাছে গুরুত্ব হারাচ্ছে, সে প্রশ্ন কি আমরা করেছি?
মিয়ানমারের মত দেশ আজ সামরিক শক্তিতে আমাদের চেয়ে এগিয়ে, কূটনৈতিক ভাবে তারা আঞ্চলিক রাজনীতিতে সফল, রোহিঙ্গা ইস্যুতে তাদের উপর চাপ প্রয়োগে আমাদের কূটনৈতিক পরাজয়, ভারত-চীন-রাশিয়ার মত বন্ধুপ্রতিম দেশগুলো কেন মিয়ানমারকে বাংলাদেশের বিকল্প হিসেবে গ্রহন করছে সে বিষয়গুলো কি আমরা ভেবে দেখেছি?
মিয়ানমারকে আমাদের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে উত্থাপন করার প্রয়াসের পিছনে অস্ত্রবাণিজ্যের নতুন ক্ষেত্র তৈরীর নীলনকশা যে হতে পারে, সেটাই বা কজন ভাবেন?

শুধুমাত্র ট্রেনিং দিয়ে যেমন কাউকে অপারেশন থিয়েটারে পাঠিয়ে রোগী বাচানোর চিন্তা করা বোকামি, ঠিক তেমনি শুধুমাত্র ট্রেনিং দিয়ে কূটনৈতিকভাবে দেশ বাচানোর আশা করাও বোকামি। আমাদের ভুলে গেলে চলবে না, শুধুমাত্র কূটনৈতিক ব্যর্থতার কারণে পূর্বে অনেক সভ্যতা ধ্বংস হয়ে গেছে।

বিশ্বরাজনীতি আজ দক্ষিণ এশিয়াতে ডাইভার্ট হচ্ছে, এ অঞ্চলের ভূ-রাজনীতি জটিল থেকে জটিলতর হচ্ছে। এখন যদি সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে ভুল হয়, তবে ভবিষ্যতে হয়ত সে ভুল শুধরানোর সুযোগ থাকবেনা।

সমাজের উন্নতির জন্য সব শ্রেণী পেশার মানুষের গুরুত্ব সমান। যার যার কাজ তাকে করতে দেয়া উচিত, অন্যথায় সমাজ ব্যর্থতায় পর্যবসিত হবে তা সহজেই অনুমেয়।

এ সম্পর্কিত আরও

no posts found
Mountain View