Mountain View

ভোলার মনপুরায় বাঁধ ভেঙে পানিবন্দি ১০ হাজার মানুষ

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ২২, ২০১৭ at ৮:১০ অপরাহ্ণ

মেহেদী হাসান তানজীল, ভোলা জেলা প্রতিনিধি : ভোলার মনপুরা বঙ্গোপসাগরে নিম্ন চাপের প্রভাব ও দুই দিনের বর্ষণে উপকূলে বেড়িবাঁধ ভেঙে ১০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। এছাড়াও নিখোঁজ হয়েছে ৩ জন। শনিবার বিকেল সাড়ে ৩ টায় উপজেলার হাজিরহাট ইউনিয়নের চৌধুরী বাজারের পূর্বপাশের ফকিরদোন এলাকার ৪টি স্থানে বাঁধ ভেঙে যায়। এতে সোনরচর, চরযতিন, নাইবেরহাট ও ঈশ্বরগঞ্জের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়। এসময় ওই এলাকার একটি বসতঘরসহ তিন জন জোয়ারের পানিতে মেঘনায় ভেসে যায়।
নিখোঁজরা হলেন- ইলিয়াস, রুহুল আমিন ও রাহাত। এদের বাড়ি ফকিরেরদোন এলাকায়। তাদের খুঁজতে তিনটি ট্রলার মেঘনায় গেছে বলে জানা গেছে। এ অবস্থার কারণে উপজেলার প্রাথমিক স্তরের ৪২টি স্কুলের চূড়ান্ত মডেল টেস্টসহ ১৬টি হাই স্কুল-মাদ্রাসার সমাপনী পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। এছাড়া নদীপথে নৌ চলাচল বন্ধ থাকায় বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে মনপুরা উপকূল। হাজিরহাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহরিয়ার চৌধুরী দীপক জানান, বেড়িবাঁধ ভেঙে তিনজনকে জোয়ারের পানিতে ভাসিয়ে নিয়ে গেছে। এছাড়াও আমন ফসলের মাঠ জোয়ারের পানিতে ডুবে গেছে।
মনপুরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহাগ হাওলাদার জানান, নতুন বেড়িবাঁধ এলাকা ভেঙে বির্স্তীন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। বিষয়টি পানি উন্নয়ন বোর্ডকে অবহিত করা হয়েছে বাঁধটি দ্রুত মেরামতের জন্য। এছাড়াও জেলা প্রশাসককে অবহিত করা হয়েছে। সকলকে দ্রুত নিরাপদ আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়ার পরামর্শ ও ভেসে যাওয়া নিখোঁজ তিন জনকে উদ্ধারে ট্রলার পাঠানো হয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের ডিভিশন-২ নির্বাহী প্রকৌশলী কাওছার আলম জানান, মেঘনার পানি বিপদসীমার ১৫০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এদিকে ভোলা আবহাওয়া অধিদফতরের পর্যবেক্ষক মাহবুব জানান, দুই দিনে জেলায় ১০৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। তবে শনিবার ৭৮ মিলিমিটার। বর্তমানে নিম্নচাপ কিছুটা দুর্বল হলেও ৩ নম্বার সতর্কতা সংকেত বহাল রয়েছে বলে জানান তিনি।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View