Mountain View

“কানাইঘাটে অবৈধ ভাবে বছরের পর বছর ধরে চলছে হাজারো সিএনজিচালিত অটোরিক্সা”

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ২৩, ২০১৭ at ১০:৪২ অপরাহ্ণ

মুফিজুর রহমান নাহিদ জেলা প্রতিনিধি সিলেটঃ সিলেটের কানাইঘাটে অবৈধ ভাবে নামে চলছে হাজারো অনটেস্ট অটোরিক্সা। এদের কোনটির নিবন্ধন নেই। এ ভাবে কানাইঘাটে বছরের পর বছর ধরে চলছে হাজারো সিএনজিচালিত অটোরিক্সা। এতে লাভবান হচ্ছেন শ্রমিক নেতা, কতিত সাংবাদিক নামধারী সহ পুলিশের কিছু লোক। প্রতি মাসে মোটা অঙ্কের বিনিময়ে রাস্তায় এগুলো চলার বৈধতা দিচ্ছেন তারা। এ ছাড়াও এসব অটোরিক্সা চালকদের কোন লাইসেন্স নেই। সমিতির সদস্য হলেই তারা গাড়ি চালাতে পারে। পরিচয় দেয় বিভিন্ন সমিতির সভাপতি সেক্রেটারীর।

মনে হয় এরাই যেন তাদের লাইসেন্স। কানাইঘাট দক্ষিণ বাজার, উত্তর বাজার, খেয়াঘাট বাসষ্টেন্ড, সুরইঘাট, চতুল ঈদগাঁহ, চতুল বাজার, গাছবাড়ী বাজার, গাছবাড়ী চৌমূহুনী, বুরহান উদ্দিন, রাজাগঞ্জ, সড়কের বাজার, ভবানীগঞ্জ বাজার সহ সব মিলিয়ে অবৈধ ভাবে চলছে হাজারো অটোরিক্সা। বিশেষ করে এই অনটেস্ট অটোরিক্সা গুলো প্রাথমিক ভাবে রাস্তায় চলতে গেলেই কানাইঘাট দক্ষিণ বাজার, উত্তর বাজার, গাছবাড়ী বাজার ও রাজাগঞ্জ সিএনজি স্ট্যান্ডে দশ হাজার টাকা টেক্স দিতে হয়। এ ছাড়াও ট্রাফিক পুলিশ ও হাইওয়ে পুলিশের রয়েছে মোটা অঙ্কের মাসোহারা।

মাসোহারা পরিশোধের বিনিময়ে তারা চালককে টোকেন সরবারাহ করেন। অনুসন্ধানে দেখা গেছে সিএনজি অটোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়নের ছত্রছায়ায় কানাইঘাটে চলাচল করছে এসব অবৈধ অটোরিক্সা। ট্রাফিক পুলিশ ও সমিতির নেতাদের যোগসাজশে এ অটোরিক্সা চলছে পৌরশহর সহ উপজেলা জুড়ে। অবৈধ অট্রোরিক্সাকে বৈধতা’র বিনিময়ে তারা হাতিয়ে নিচ্ছেন মোটা অংকের টাকা। খোজ নিয়ে জানা গেছে সিএনজি অট্রোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়নের অন্তর্ভক্ত কানাইঘাট দক্ষিণ বাজার, উত্তর বাজার ও গাছবাড়ি বাজার শাখার অধীনে অবৈধ অট্রোরিক্সা রয়েছে হাজারখানেক। প্রতিটি গাড়ির নাম্বও বিহীন আবার কোনটি পিছনে অনটেস্ট। অট্রোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়নের নেতারা প্রতিটি অট্রেরিক্সা থেকে ১ হাজার টাকা করে আদায় করে চালকদের টোকেন দিয়ে থাকেন।

আর ঐ টোকনে চলে যায় ১ মাস। একটু গভীরে গিয়ে জানা যায় অট্রোরিক্্রা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে আরেটি সিন্ডিকেট। এ সব অবৈধ সিএনজি নিরাপদে রাজপথে চলার গ্যারান্টি দিয়ে কতিত কিছু সাংবাদিক নামধারী প্রতারকরা জড়িত রয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তারা পত্রিকা পরিবহন নামে ট্রাফিকের সাথে অনৈতিক লেনদেনের মাধ্যমে স্টিকার লাগিয়ে প্রতি মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। বিশ্বত্ব সূত্রে জানা যায় কানাইঘাট উপজেলায় প্রায় অর্ধ শতাধিক অটোরিক্সা সাংবাদিক নাম ধারণ করে অবাধে চলছে। এমন এক সিএনজি কিছু দিনপুর্বে ধরা পড়ে কানাইঘাট থানায়।

খোজ নিয়ে জানা যায় সিলেটের অনলাইন পোর্টাল যুগপথের স্টিকার লাগিয়ে প্রায় শতাধিক সিএনজি রাস্তায় চলছে। বিনিময় চালকরা প্রতি মাসে জকিগঞ্জের ফয়সল নামের এক যুবক ও তার সহযোগীদের দুই হাজার করে টাকা দিতে হয়। এ টাকা গুলো পরিশোধ করলে নিরাপদে তারা কানাইঘাট থেকে সিলেট শহর ঘুরে আসতে পারে। এ ব্যাপারে কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল আহাদ জানান এ রকম একটি অটোরিক্সা আটকের পর জকিগঞ্জের ফয়ছল নামের এক যুবক মোবাইল ফোনে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে তাকে অটোরিক্সাটি ছেড়ে দিতে বলে। পরে তিনি জানতে পারেন ফয়ছল নামের এ যুবক যুগপথের পরিচয় দিয়ে বেশ কিছু অটোরিক্সা চালিয়ে যাচ্ছে।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View