Mountain View

‘নিরপেক্ষ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন দেখতে চায় ভারত’

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ২৩, ২০১৭ at ৮:০৩ পূর্বাহ্ণ

আগামীতে বাংলাদেশে সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ এবং সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন দেখতে চায় ভারত- এমনটা জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
রোববার রাত ৮টায় সোনারগাঁও হোটেলে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে ঢাকা সফররত ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের বৈঠক শেষে তিনি এ কথা জানান।
মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে অত্যন্ত সৌহর্দ্যপূর্ণ পরিবেশে বৈঠক হয়েছে। আলোচনায় দুই দেশের যে পারস্পরিক সম্পর্ক রয়েছে সেটা কিভাবে আরও শক্তিশালীর করা যায় সেই বিষয়ে কথা হয়েছে।’
তিনি বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া বৈঠকের একপর্যায়ে রোহিঙ্গা ইস্যুটি আলোচনায় তোলেন। তিনি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে অবহিত করেন, রোহিঙ্গা একটি বড় সমস্যা, এটা দ্রুত সমাধান করতে হবে। বাংলাদেশে সাময়িকভাবে তাদের আশ্রয় দেওয়া হয়েছে, তাদেরকে মিয়ানমারে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। তাদের নিরাপদ একটা আবাস তৈরি করতে হবে।’
বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিএনপি চেয়ারপারসনের বক্তব্যের বিষয়ে একমত হয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। সুষমা স্বরাজ বলেন- আমরাও চাই রোহিঙ্গারা যাতে নিরাপদে তাদের দেশে ফিরে যেতে পারেন।’
তিনি জানান, মিয়ানমার সরকারের উপর ভারত তাদের চাপ অব্যাহত রেখেছে। তারাও আশা করেন, একটি নিরাপদ পরিবেশে রোহিঙ্গারা যাতে ফিরে যেতে পারেন।’
মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বাংলাদেশের বর্তমান যে রাজনৈতিক অবস্থা তা নিয়ে বৈঠকে আলোচনা করেছেন। আগামী নির্বাচন সম্পর্কে আলোচনা করেছেন। বর্তমান সমস্যাগুলো তিনি তুলে ধরেছেন। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এই সমস্যাগুলো শুনেছেন।’
তিনি বলেন, ‘ভারত একটি বৃহৎ গণতান্ত্রিক দেশ। তারাও চান বিশ্বের অন্যান্য দেশ এবং প্রতিবেশী দেশগুলোতে গণতন্ত্রের চর্চা অব্যহত থাকুক এবং গণতান্ত্রিকভাবেই সরকার নির্বাচিত হোক। একইভাবে বাংলাদেশে আগামী নির্বাচন যেন সুষ্ঠু নিরপেক্ষ হয়।’
বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন যাতে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারেন এবং সকল দলের অংশগ্রহণে একটি সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন যাতে হয় তারা (ভারত) তা প্রত্যাশা করেন।’
বৈঠকটি প্রায় ৪৫ মিনিট স্থায়ী হয় বলে জানান মির্জা ফখরুল। বৈঠকে খালেদা জিয়ার সঙ্গে অন্যদের মধ্যে ছিলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ড. আবদুল মঈন খান ও আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, উপদেষ্টা রিয়াজ রহমান ও সাবিহ উদ্দিন আহমদ প্রমুখ।
এসময় সুষমা স্বরাজের সঙ্গে ছিলেন ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা।
প্রসঙ্গত, দুদিনের সফরে রোববার বেলা পৌনে ২টার দিকে ভারতীয় বিমানবাহিনীর বিশেষ ফ্লাইটে করে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায় পৌঁছান। কুর্মিটোলা বঙ্গবন্ধু বিমান ঘাঁটিতে তাকে স্বাগত জানান বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View