Mountain View

যা ছিল সৈয়দ আশরাফের স্ত্রীর শেষ ইচ্ছা

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ২৩, ২০১৭ at ৯:২৫ অপরাহ্ণ

‘শিলা ইসলামকে কাছে থেকে দেখার, তার সঙ্গে কথা বলার সুযোগ হয়েছে আমার। একজন ভিআইপি রাজনীতিকের স্ত্রী হয়েও তার মধ্যে কোনো অহমিকা ছিল না। খুবই সাদামাটা ও সহজিয়া ছিলেন তিনি। সাধারণ মানুষের সঙ্গে সহজেই মিশে যেতে পারতেন।’ জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের স্ত্রী শিলা ইসলামের মৃত্যুর খবরে একজন এভাবেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার অনুভূতির কথা লিখেছেন।

শিলা ইসলাম ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক হলেও কিশোরগঞ্জবাসীর কাছে তিনি ছিলেন ‘নিজেদের মেয়ে’। স্বামী দেশের প্রভাবশালী রাজনীতিক দল আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য, জনপ্রশাসনমন্ত্রী ও দলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। শ্বশুর ছিলেন দেশের প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম। প্রভাবশালী রাজনৈতিক পরিবারের বধূ হয়েও তিনি ছিলেন একেবারেই সহজ-সরল একজন নারী। চাকরি করতেন ব্রিটেনের একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে।

একমাত্র মেয়েকে নিয়ে থাকতেন ব্রিটেনে। মেয়ে রিমা ইসলাম সেখানে একটি ব্যাংকে চাকরি করেন। স্বামী দেশের রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়ার পর থেকে তিনি মাঝে মধ্যে বাংলাদেশে চলে আসতেন। ছুটে আসতেন কিশোরগঞ্জে। বিশেষ করে সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম জনপ্রশাসন মন্ত্রী হওয়ার পর বেশিরভাগ সময় তিনি দেশেই থাকতেন। সময় পেলেই চলে আসতেন কিশোরগঞ্জে। সরাসরি রাজনীতিতে যুক্ত না হয়ে কাজ করতেন বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে।

কিশোরগঞ্জে নির্মিত হচ্ছে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল। এ জন্য প্রায়ই কিশোরগঞ্জ আসতেন তিনি। মেডিকেল কলেজের নির্মাণকাজ তদারিক করতেন। বরাদ্দকৃত অর্থ ছাড় করাতে কলেজের অধ্যক্ষকে নিয়ে চলে যেতেন মন্ত্রণালয়ে। শিশুদের জন্য শিলা ইসলামের ছিল অন্যরকম এক ভালোবাসা। কিশোরগঞ্জে এলেই শিশুদের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশ নিতেন তিনি। শিশুদের সঙ্গে সময় কাটাতে চলে যেতেন বিভিন্ন স্কুলে।

তার স্বপ্ন ছিল কিশোরগঞ্জে শিশুদের জন্য একটি বিনোদন পার্ক তৈরির। শিশুপার্ক নির্মাণের জন্য তিনি স্বামীর সহায়তায় একটি জায়গাও নির্বাচন করেছিলেন। তার ইচ্ছা ছিল নবনির্মিত শিশুপার্কে শিশুদের হৈ-হুল্লোরের মাঝে হারিয়ে যাবেন তিনি। কিন্তু এর আগেই ক্যান্সারের কাছে হেরে বিদায় নিতে হলো তাকে।

শিলা ইসলামের দেবর কিশোরগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম টিটু বিডি২৪লাইভকে জানান, ‘ভাবির শেষ ইচ্ছা ছিল কিশোরগঞ্জে একটি শিশুপার্ক নির্মাণ করা। এ জন্য তিনি অনেক দিন ধরেই চেষ্টা চালাচ্ছিলেন। গত বছর গণপূর্ত সচিবকে নিয়ে কিশোরগঞ্জ আসেন। সদর উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন শোলমারা এলাকায় একটি জমিও নির্বাচন করা হয়। কিন্তু সেই স্বপ্ন অপূর্ণই থেকে গেল।’

জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য নারী নেত্রী বিলকিস বেগম বলেন, ‘ভাবি ছিলেন একজন সহজ-সরল অতি সাধারণ মানুষ। তার মধ্যে কোনো অহমিকা ছিল না। কিশোরগঞ্জে এলেই এলাকার গরিব-দুঃখি মানুষের খোঁজ-খবর নিতেন। তাদের সুখ-দুঃখে পাশে থাকতেন।’

প্রসঙ্গত, আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের স্ত্রী শিলা ইসলাম সোমবার (২৩ অক্টোবর) বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টা ১০ মিনিটে লন্ডনের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। তিনি ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View