Mountain View

রাজশাহীকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে শীর্ষে ঢাকা ডাইনামাইটস!

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ১৮, ২০১৭ at ৪:৪৪ অপরাহ্ণ

ব্যাট হাতে তেমন কিছু করতে পারেননি শহীদ আফ্রিদি। তবে বল হাতে কাজের কাজটা করে দিলেন।শুরুটা করেছিলেন আবু হায়দার রনি। রাজশাহীর ব্যাটিং লাইনআপে প্রথম আঘাত হানেন তিনি। দ্রুত ২ উইকেট তুলে নিয়ে মূলত ছিন্নভিন্ন করে দেন স্যামিদের ব্যাটিং লাইনআপ। এরপর অধিনায়ক সাকিব আর আফ্রিদি মিলে শেষটা ছেঁটে দেন। ৪ ওভারে ২৬ রান দিয়ে আফ্রিদি নিয়েছেন ৪ উইকেট। আর ২.২ ওভারে মাত্র ১১ রান দিয়ে রনি নিয়েছেন ৩ উইকেট। ঢাকা জয় পেয়েছে ৬৫ রানের বড় ব্যবধানে।
২০২ রানের বড় টার্গেট তাড়া করতে নেমে শুরুতেই আবু হায়দার রনির তোপের মুখে পড়ে নড়বড়ে অবস্থানে থাকা দলটি। দলীয় ২ রানেই এই পেসার ফিরিয়ে দেন আরেক রনিকে (০) (রনি তালুকদার)।

আবু হায়দারের দ্বিতীয় শিকার হন সামিট প্যাটেল (৬)। এরপর দ্রুত মুমিনুল হক (১৬) আর মুশফিকুর রহিমকে (২) তুলে নিয়ে রাজশাহীকে কার্যত বিপদে ফেলে দেন শহীদ আফ্রিদি। ৭২ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে মুখ থুবড়ে পড়ে ড্যারেন স্যামির দল।
এরপরই মঞ্চে আসেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ফ্র্যাংকলিনকে ৯ রানে পোলার্ডের ক্যাচে পরিণত করেন তিনি। অধিনায়ক ড্যারেন স্যামিও (১৯) ডায়নামাইটস অধিনায়কের শিকার হন। এরপর ছিল কেবল নিয়ম রক্ষার পালা। সেই নিয়মের কারণেই মেহেদী মিরাজকে (১০) বোল্ড করে দেন আফ্রিদি। ফরহাদ রেজাকে মোহাম্মদ সাদ্দাম। ১৮.২ ওভারে রাজশাহী কিংসের ইনিংস থামে ১৩৩ রানে।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ শনিবার দিনের প্রথম ম্যাচে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ৭ উইকেটে ২০১ রান তোলে ঢাকা ডায়নামাইটস। দুই ওপেনার শহীদ আফ্রিদি আর এভিন লুইস মাত্র ৪ ওভারে ৫৩ রানের জুটি গড়ে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন। পঞ্চম ওভারের প্রথম বলে মেহেদী মিরাজের বলে বোল্ড হয়ে যান ৮ বলে ৩ বাউন্ডারিতে ১৫ রান করা শহীদ আফ্রিদি। এরপর মেহেদী মিরাজের দ্বিতীয় শিকার হওয়ার আগে ১৩ রানের বেশি করতে পারেননি জহরুল।

তবে ওপেনার এভিন লুইস স্বভাবসুলভ দাপুটে ব্যাটিংয়ে হাফ-সেঞ্চুরি তুলে নেন। হোসেন আলীর বলে মুমিনুলের তালুবন্দি হওয়ার আগে তিনি ৩৮ বলে ১০ চার ১ ছক্কায় ৬৫ রান করেন। নাদিফ চৌধুরি ৬ রান করে ফিরলে উইকেটে আসেন অধিনায়ক সাকিব। সামিট প্যাটেলের শিকার হওয়ার আগে তার সংগ্রহ ১১ বলে ‌‌১১ রান।

লঙ্কান লিজেন্ড কুমার সাঙ্গাকারা ২২ বলে ৩ বাউন্ডারিতে ২৮ রান করে ফেরেন। তবে ৭ নম্বরে নেমে ঝড় তোলেন কায়রন পোলার্ড। ইনিংস শেষে তিনি ২৫ বলে ৫ বাউন্ডারি আর ৩ ওভার বাউন্ডারিতে ৫২ রানে অপরাজিত থাকেন। ইনিংসের শেষ বলে আউট হয়ে যান সুনিল নারাইন (০)। ঢাকার রান দাঁড়ায় ৭ উইকেটে ২০১।

এ সম্পর্কিত আরও