A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
প্রচ্ছদ / খেলাধুলা / সবচেয়ে বিপদের বন্ধুকে হারালেন মাশরাফি

সবচেয়ে বিপদের বন্ধুকে হারালেন মাশরাফি

দেশের ক্রিকেটের জন্য দীর্ঘদিন কাজ করা অভিজ্ঞ চিকিৎসক ড. মনিরুল আমিন শাম্মীর অকাল মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে বিসিবি।

মনিরুল আমিন ছিলেন দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের মেডিকেল কমিটির স্বনামধন্য চিকিৎসক। অকস্মাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হলে তাকে ভর্তি করা হয় রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার মৃত্যুবরণ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৪৬ বছর।

ক্রিকেট অঙ্গনের সকলের প্রিয় এই চিকিৎসকের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে বিসিবি। এক শোক বার্তায় মনিরুল আমিনের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানায় সংস্থাটি।

২০১০ সালে বিসিবির মেডিকেল কমিটিতে যোগ দেন মনিরুল আমিন। দেশের ক্রিকেটের অভিভাবক সংগঠনের দীর্ঘ পথচলায় তিনি ছিলেন বিশ্বস্ত এক সহচর। খেলোয়াড়, কোচ, কর্মকর্তা- সবার কাছেই প্রিয় এক মানুষ ছিলেন তিনি। চিকিৎসা পেশার উর্ধ্বে উঠে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন বিনয় ও ব্যক্তিত্বের জন্য।

দেশের ক্রিকেটারদের কাছে মনিরুল আমিন ছিলেন প্রিয় এক মুখ। যেকোনো শারীরিক সমস্যার সম্মুখীন হলেই মাশরাফি-সাকিব-তামিমরা হাজির হতেন তাঁর কাছে। তাঁকে হারানোয় বেদনার নীল রঙ ছুঁয়ে গেছে ক্রিকেটারদেরও।

জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক ও দেশসেরা পেসার মাশরাফি বিন মুর্তজা ব্যক্তিগত ফেসবুক প্রোফাইলে স্ট্যাটাস দেওয়ার মাধ্যমে মনিরুল আমিনের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন। মাশরাফি লিখেন, ‘কাল সন্ধ্যা থেকে ফোন করছি ডাক্তারের অ্যাপয়েনম্যান্ট এর জন্য। ফোন ধরছেই না। ভাবলাম জার্সিটা খেলার পরপরই পায়নি বলে রেগে আছেন। পরে শুনি হাসপাতালে ভর্তি। হার্ট অ্যাটাক। ডাক্তার বললো, দোয়া করতে। কিন্তু যা হওয়ার হয়ে গেলো।’

মনিরুল আমিনকে ‘সবচেয়ে বিপদের বন্ধু’ আখ্যা দিয়ে মাশরাফি আরও লিখেন, ‘সবচেয়ে বিপদের বন্ধুকে হারিয়ে ফেললাম। জার্সিটাও আর দেওয়া হলো না। কোনভাবেই বিশ্বাস হচ্ছে না ফাইনালের পরে দেখা সুস্থ্ মানুষটা আর নাই। আমিন ভাই, আল্লাহ আপনাকে বেহেস্ত নসিব করুন।’

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

অবশেষে এশিয়া ক্রিকেটের সভাপতি হচ্ছেন পাপন

এশিয়ার ক্রিকেটের বর্তমান সভাপতি হিসেবে আছেন পাকিস্তানের শাহরিয়ার খান। আর তার মেয়াদ শেষ হতে যাচ্ছে …