A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
প্রচ্ছদ > সারাদেশ > ভারতেশ্বরী হোমসের ছাত্রীর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা
Mountain View

ভারতেশ্বরী হোমসের ছাত্রীর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

আরাফাত ইসলাম শুভ, মির্জাপুর উপজেলা সংবাদদাতাঃটাঙ্গাইলের মির্জাপুরে দানবীর রণদা প্রসাদ (আরপি) সাহার প্রতিষ্ঠিত নারী শিক্ষার অন্যতম বিদ্যাপীঠ ঐতিহ্যবাহী ভারতেশ্বরী হোমস এর ছাত্রী মেহিয়া আক্তার বাবলী(১৭) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

বাবলীর পিতার নাম মোঃ বখতিয়ার রানা এবং মাতার নাম পারুল বেগম। তারা ঢাকার সায়েদাবাদের বাসিন্দা। সে এবারের চলমান এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল। কটুক্তির সইতে না পেরে চাপা ক্ষোভ ও যন্ত্রণা নিয়ে সে আত্মহত্যা করেছে বলে তার পরিবারের অভিযোগ।

অবশ্য তার ফেসবুকে প্রোফাইলে গতকাল বুধবার সকাল ১০টা ৪১ মিনিটে শেয়ার করা সর্বশেষ পোস্টেও তার হতাশার প্রতিফলন লক্ষ্য করা গেছে।

জানা গেছে, বাবলী গতকাল ২১শে ফেব্রুয়ারি বুধবার দিবাগত রাতে মির্জাপুর উপজেলা সদরের বাইমহাটি গ্রামে অবস্থিত তার বান্ধবী জয়ার সঙ্গে পরীক্ষা দেয়ার জন্য সেই বাসায় এসে বাবলী আত্মহত্যা করে।

এদিকে রহস্যজনক কারণে বাবলীর লাশ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে বাসার লোকজন মির্জাপুর থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে রাত সাড়ে ১০টার দিকে, ঐ বাসার একটি কক্ষ থেকে গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত অবস্থায় বাবলীর মৃতদেহ উদ্ধার করে।

বাবলীর মাতা পারুল বেগম জানান, বাবলী ভারতেশ্বরী হোমস থেকে ২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থী হিসেবে পরীক্ষা দিচ্ছে এবং আবাসিক হলের ছাত্রী ছিল। তিনি অভিযোগ করেন, তার মেয়ে বাবলী ভারতেশ্বরী হোমসের আবাসিক হলে থাকা অবস্থায় কিছুদিন পুর্বে হোস্টেলের ডাইনিং হলে রান্না নিয়ে তার কন্যার সঙ্গে শিক্ষক ও রান্নাঘরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কথা কাটাকাটি হয়।

এ বিষয়ে হোমস কর্তৃপক্ষ অভিভাবকদের জানালে তারা হোমসে এসে অধ্যক্ষ, শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে দেখা করে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। বাবলীর মাও ক্ষমা চেয়ে নেন যেন তার মেয়ে হোমস থেকে এবছর এসএসসি পরীক্ষা দিতে পারে। কিন্ত হোমস কর্তৃপক্ষ তাকে ও তার কন্যাকে ক্ষমা না করে আবাসিক হল থেকে বের করে দেয়। তখন মেয়েকে নিয়ে চরম বিপাকে পরেন তারা।

শেষে নিরুপায় হয়ে গত ১ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এসএসসি পরীক্ষা বাবলী তার বান্ধবী জয়ার বাড়িতে মির্জাপুর পৌর সদরের লোকমান মিয়ার বাসা থেকে দিতে থাকে। এরপর গতকাল বুধবার রাতে ঐ বাসার একটি কক্ষে বাবলীর মৃতদেহ পাওয়া যায়।

বাবলীর পরিবারের অভিযোগ করে বলেন, ভারতেশ্বরী হোমস থেকে বের করে দেওয়ার অপবাদ সইতে না পেরে তার মেয়ে আত্মহত্যা করেছে। তারা তদন্ত সাপেক্ষ মেয়ের হত্যার বিচার এবং দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে ভারতেশ্বরী হোমসে যোগাযোগ করা হলে হোমস কর্তৃপক্ষ জানান, বিভিন্ন অভিযোগের প্রেক্ষিতে ভারতেশ্বরী হোমসের নিয়মানুসারে বাবলীকে আবাসিক হল থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। বাবলী এখন হোমসের আবাসিক হলের ছাত্রী নয়। সে বাহিরে থেকে পরীক্ষা দিচ্ছে। কি কারনে সে আত্মহত্যা করেছে এটা তার পরিবারের ব্যাপার হোমসের নয়। এ বিষয়ে তারা আর কথা বলতে রাজি হয়নি।

মির্জাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম মিজানুল হক জানান, গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। কি কারণে সে আত্মহত্যা করেছে তার সঠিক কারণ এখনো জানা যায়নি। তবে ময়না তদন্তের পর তার পরিবারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ সম্পর্কিত আরও

Best free WordPress theme

Check Also

সরিষাবাড়ীতে মাদক ব্যবসায়ী আটক

হাফিজুর রহমান,সরিষাবাড়ী(জামালপুর) প্রতিনিধিঃ জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ী থানা পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে গাজা সহ দুই মাদক …