বৃহস্পতিবার , মে ২৪ ২০১৮, ১২:১০ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
প্রচ্ছদ > খেলাধুলা > নতুন চুক্তি ক্রিকেটারদের অনুৎসাহিত করবে নাতো!!
Mountain View

নতুন চুক্তি ক্রিকেটারদের অনুৎসাহিত করবে নাতো!!

জুবায়ের আহমেদ: গতকাল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড জাতীয় ক্রিকেটারদের সাথে নতুন চুক্তিতে আবদ্ধ হয়। আগের চুক্তির আওতাধীন ১৬ ক্রিকেটারের মধ্য থেকে ৬ জনকে বাদ দিয়ে ১০ জনকে নতুন চুক্তিতে রাখা হয় এবং আরো ৩ জনকে অন্তর্ভূক্ত করা হবে, তবে তাদের নাম এখানো প্রকাশ করা হয়নি। তাদের অন্তর্ভূক্ত করা হলে চুক্তির আওতাধীন ১৩ জন ক্রিকেটার থাকবে।

ইতিমধ্যেই সকলে জেনে গেছেন যে, টেস্ট খেলুড়ে দলগুলোর মধ্যে একমাত্র বাংলাদেশই সর্বনিম্ন ১০ জন ক্রিকেটারের সাথে চুক্তি করেছে গতকাল। আর্থিক অনটনে থাকা জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটেও আরো বেশি ক্রিকেটার কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকে। সেখানে বিশ্বের অন্যতম ধনী ক্রিকেট বোর্ড বাংলাদেশের মাত্র ১০ জন ক্রিকেটার কেন্দ্রীয় চুক্তিতে আছে, তা বিস্ময়করই।

৬ জনকে বাদ দিতে গিয়ে বলা হয়েছে, তারা এখন ফর্মে নেই, বিষয়টা সত্যিই হাস্যকর। ক্রিকেটের স্বীকৃত তিনটি ফরম্যাটের যেকোন একটি ফরম্যাটের দল গঠন করতে গেলে কম করে ১৪/১৫জন ক্রিকেটারের দরকার হয় এবং তিনফরম্যাট মিলিয়ে প্রায় ১৮/২০ জন ক্রিকেটার থাকে, যারা নিয়মিত জাতীয় দলে প্রতিনিধিত্ব করেন। কিন্তু বিসিবি ৬ জনকে বাদ দিতে গিয়ে যে ব্যাখ্যা দিয়েছেন, তাতে পরিস্কার যে, ১০ জনের বাহিরে কেউ ফর্মে নেই বাংলাদেশ দলে। তাহলে একটা জাতীয় দল চলে কিভাবে? তিনফরম্যাট মিলিয়ে নিয়মিত ১৬/১৭ জন ক্রিকেটারই যদি জাতীয় দলে আবশ্যিক ভিত্তিতে না থাকে তাহলে ক্রিকেটে আমাদের অবস্থান কোথায়?

আমরা সকলেই জানি যে, ক্রিকেট মানসিক প্রশান্তির খেলা, এখানে ক্রিকেটারদের যত প্রফুল্ল রাখা যায় ততই পারফর্ম করতে পারে তারা, চাপ দিয়ে কিংবা শাস্তি দিয়ে পারফর্ম করানো যায় না। যাদেরকে বাদ দেওয়া হয়েছে তারা জাতীয় দলের পরবর্তী সিরিজেও খেলবেন, কিন্তু চুক্তিতে না থাকার হতাশায় যদি ভালো খেলতে না পারেন, বা ভালো খেলবেনই তার গ্যারান্টি কে দেবে?

ইমরুল কায়েস অভিজ্ঞ ও নিয়মিত ক্রিকেটার, সাম্প্রতিক সময়ে তার ফর্ম ভালো যাচ্ছে না, তবে সে টেস্টে ও ওয়ানডেতে অত্যন্ত অভিজ্ঞ ও তামিমের নিয়মিত সঙ্গী, সাথে আছেন তাসকিন আহমেদ, তিনিও সর্বশেষ এক সিরিজ ব্যতীত নিয়মিত খেলছেন, তাদের বাদ দিয়ে কিভাবে ফর্মে ফেরাবে বিসিবি? তা বোধগম্য নয়।

ভারত, অস্ট্রেলিয়া সহ প্রায় দেশেই বিভিন্ন ক্যাটাগরীতে প্রায় ২৫/৩০ জন ক্রিকেটারের সাথে চুক্তি করে বোর্ডগুলো, সেখানে বয়সভিত্তিক দল ও জাতীয় দলের নিয়মিত ও অভিজ্ঞ ক্রিকেটাররা সুযোগ পান। তাদের পারফরম্যান্সও কারো অজানা নয়। কিন্তু বাংলাদেশের মতো একটি উঠতি দল এবং সাম্প্রতিক সময়ে পারফরম্যান্সও আহামরি নয় বাংলাদেশের, কোচ সহ বিভিন্ন বিষয়ে তালমাটাল অবস্থা, সেখানে ৬ ক্রিকেটারদের চুক্তি থেকে বাদ দিয়ে ১০ জন ক্রিকেটারকে চুক্তিতে রাখা, কখনোই ভালো সিদ্ধান্ত হতে পারে না।

ক্রিকেটাররা কোন সিরিজে ভালো খেললে মাঝপথে মোটা অংকের বোনাস ঘোষণার বিপরীতে, কিছু ক্রিকেটার তাদের প্রাপ্য থেকে বঞ্চিত হওয়ার ঘটনা নিঃসন্দেহে হাস্যকর। হঠাৎ ভালো খেললেও বোনাস ঘোষণা বাদ দিয়ে ১৫ থেকে ২০ জন ক্রিকেটারকে নিয়মিত বেতনের আওতাভুক্ত রাখা সময়ের সঠিক সিদ্ধান্ত হতো। ৬ জনকে বাদ দেওয়া এবং মাত্র ১০জনকে চুক্তিতে রাখার ঘটনা তরুন ও অভিজ্ঞদেরকে ক্রিকেটে অনুৎসাহিত করার জন্যও যথেষ্ট। বেতনের পরিমাণ খুব বেশি না হলেও একজন ক্রিকেটারের জন্য বেতনের আওতাভুক্ত থাকাটা সম্মানের। বিসিবি যে চিন্তা থেকেই হউক, তাদেরকে বঞ্চিত করার সিদ্ধান্ত মোটেও বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য কল্যাণ বয়ে আনবে না।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

বাংলাদেশের সর্বকালের সেরা টেস্ট একাদশ

বিডি টোয়েন্টিফোর টাইমসঃ নিদাহাস ট্রফির পর আপাতত টাইগারদের আর কোন খেলা নেই। এই সময়টাতে বিডি …