A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
প্রচ্ছদ > সারাদেশ > রাসিক নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা নেই : ইসি শাহাদাত
Mountain View

রাসিক নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা নেই : ইসি শাহাদাত

আসন্ন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন (রাসিক) নির্বাচন নিয়ে কোনো ধরনের শঙ্কা নেই বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী। বিএনপি মনোনীত প্রার্থীর প্রচারণায় ককটেল হামলার প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার দুপুরে রাজশাহীতে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।এর আগে বিভাগীয় কমিশনারে কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বিভাগীয় কমিটির সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। তাতে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন নির্বাচন কমিশনার। সেখান থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন তিনি।

নির্বাচনের পরিবেশ শান্তিপূর্ণ আছে উল্লেখ করে শাহাদাত হোসেন বলেন, এনিয়ে আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী ও গোয়েন্দারা কাজ করছে। যে কোনো ঝুঁকিপূর্ণ ঘটনা এড়াতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সর্বোচ্চ সতর্ক থাকবে। এ সময় কর্মীদের নিয়ন্ত্রণে রাখতে প্রার্থীদের প্রতি আহ্বন জানান তিনি।এর আগে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নগরীর সগরপাড়া বটতলা মোড়ে মুখোশধারী ছয় মোটরসাইকেল আরোহী মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের প্রচারণায় ককটেল হামলা চালায়। এতে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান, বাংলাভিশনের সাংবাদিক পরিতোষ চৌধুরী আদিত্য এবং স্থানীয় স্বপন কর্মকার আহত হন।

ওই হামলায় আওয়ামী লীগ জড়িত বলে দাবি করছে বিএনপি। এতে ১০-১২ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলেও দাবি করছেন বিএনপি নেতারা। তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে একে সাজানো নাটক বলছে আওয়ামী লীগ। প্রধান দুই প্রার্থীর আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার বলেন, অভিযোগ প্রার্থীদের নির্বাচনী সংস্কৃতি। সব অভিযোগ আমলে নেয়া হচ্ছে। সু-নির্দিষ্ট অভিযোগ হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ সময় প্রার্থীদের আচরণবিধি মেলে চলার পরামর্শ দেন তিনি।

পুলিশ সাজানো মামলায় নেতাকর্মীদের গ্রেফতার ও হয়রানি করছে- বিএনপির এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশনার বলেন, কোনো সাজানো মামলায় এমনকি গ্রেফতারি পরোয়ানা ছাড়া কাউকে গ্রেফতার করা যাবে না। প্রয়োজনে পোলিং এজেন্টদের তালিকা নির্বাচন কমিশন ও পুলিশের কাছে দিতে হবে। যাতে তারা হয়রানির হাত থেকে রক্ষা পান। গ্রেফতারি পরোয়ানাভুক্ত আসামি পোলিং এজেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না বলে জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে ৩০টি মোবাইল কোর্ট থাকবে। বিজিবিসহ প্রতিটি ওয়ার্ডে স্ট্রাইকিং ফোর্সের সঙ্গে ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন। ১০ জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন। প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি করে র‌্যাব ও পুলিশের মোবাইল স্ট্রাইকিং ফোর্স থাকবে। ভোট কেন্দ্রের নিরাপত্তায় প্রত্যেক কেন্দ্রে থাকবে ২২ থেকে ২৪ জন পুলিশ ও আনসার । রিটার্নিং অফিসারকে সহযোগিতার করার জন্য ১০ জন সহকারী রিটার্নিং অফিসার থাকবেন। এছাড়া প্রতি ওয়ার্ডে একজন করে নিজস্ব পর্যবেক্ষক থাকবে ইসির। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠানে সব পক্ষের সহায়তা চান নির্বাচন কমিশনার।

রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর-রহমানের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View

Check Also

কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা লুমা আটক

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের জন্য উদ্দেশ্যে হওয়া আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-আহবায়ক লুৎফুন্নাহার লুমাকে সিরাজগঞ্জ থেকে …